মোটরসাইকেল না দেয়ায় ঘরে আগুন : মা-বাবা দগ্ধ

স্টাফ রিপোর্টার: মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় মা-বাবার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয় ১৭ বছরের এক কিশোর। এতে ওই কিশোরের মা-বাবা দগ্ধ হন। গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে ফরিদপুর শহরের কমলাপুর বটতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। দগ্ধ বাবা এটিএম রফিকুল হুদাকে (৪৮) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। মা সিলভিয়া হুদাকে (৪০) ফরিদপুরে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। রফিকুল হুদা পেশায় ব্যবসায়ী। ওই কিশোর তাদের একমাত্র সন্তান।

দগ্ধ রফিকুল হুদার ভগ্নিপতি আকরাম উদ্দিন আহমেদ জানান, এ বছর ফরিদপুর জিলা স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে বাবার কাছে নতুন মডেলের একটি মোটরসাইকেল দাবি করে রফিকুল। কিন্তু মোটরসাইকেল কিনে দিতে অস্বীকৃতি জানালে সে বাবার ওপর ক্ষুব্ধ হয়। একপর্যায়ে সে ঘরের মধ্যে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে রফিকুল হুদার শরীরের বিভিন্ন অংশ ও মা সিলভিয়া হুদার পায়ের কিছুটা অংশ পুড়ে যায়।

এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে প্রথমে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়। তবে রফিকুলের অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আগুনে রফিকুল হুদার শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে। আমরা সাথে সাথেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করি।’ রফিকুলের সাথে থাকা আরেক ভগ্নিপতি গোলাম মাহমুদ বলেন, শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে রফিকুল হুদাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে নেয়া হয়েছে। চিকিৎসকেরা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *