মেহেরপুর পৌরসভার ভিজিএফ বরাদ্দের অর্ধেক দাবি সংসদ সদস্য পক্ষের : মৌন মিছিল : মেয়র বলছেন দাবি অযৌক্তিক

0
37

মহাসিন আলী/মাজেদুল হক মানিক: আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে দুস্থদের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচির আওতায় (ভিজিএফ) মেহেরপুর পৌরসভায় বরাদ্দকৃত কার্ডের অর্ধেক দাবি করা হয়েছে মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য জয়নাল আবেদীনের পক্ষ থেকে। এ দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শহরে মৌন মিছিল করেছেন তারা। তবে পৌর মেয়র বলছেন, সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী এ বরাদ্দে হস্তক্ষেপ করার কোনো এখতিয়ার নেই স্থানীয় সংসদ সদস্যের।

মেহেরপুর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্কাছ আলী জানিয়েছেন, মেহেরপুর পৌরসভায় ৪ হাজার ৬২১টি কার্ডের অর্ধেক সংসদ সদস্যের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় স্থানীয় জনগণের মাঝে বন্টনের জন্য। কেননা অনেক দুস্থ মানুষ পৌরসভার তালিকা থেকে বাদ পড়ে। কিন্তু পৌর মেয়র মাত্র ৬৫০টি কার্ড দিতে রাজি হয়েছেন। দাবি পূরণে গতকাল সকালে আক্কাস আলীর নেতৃত্বে শহরের প্রধান সড়কে মৌন মিছিল করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যান নেতৃবৃন্দ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পল্টু, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মান্নান, জেলা যুবলীগের সভাপতি সাজ্জাদুল আনাম ও শহর আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক আব্দুল মতিনসহ নেতৃবৃন্দ। বিষয়টি নিয়ে নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের সাথে মোবাইলফোনে আলাপ করেছেন।

বরাদ্দের বিষয়টি জানতে চেয়ে মেহেরপুর পৌর মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতুর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানিয়েছেন, সরকারি নীতিমালা অনুসারে ভিজিএফ বরাদ্দ মেয়রের নামে আর দুস্থদের তালিকা করবেন কাউন্সিলররা। এতে স্থানীয় সংসদ সদস্যের হক্ষক্ষেপ করার কোনো এখতিয়ার নেই। তিনি শুধুমাত্র পৌরসভা মানবিক সহায়তা কমিটির উপদেষ্টা। গত বুধবার মানবিক সহায়তা কমিটির সভায় সংসদ সদস্য জয়নাল আবেদীনের জন্য ৬৫০টি কার্ড বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ১২ অক্টোবর শনিবার বেলা ১০টার মধ্যে এ কার্ডের নামের তালিকা চাওয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে তালিকা না দিলে পৌরসভার মানবিক সহায়তা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বরাদ্দ দিয়ে দেয়া হবে। দেশের কোথাও পৌরসভার বরাদ্দে সংসদ সদস্যরা হস্তক্ষেপ করেন না জানিয়ে মেয়র আরো বলেছেন, ৬ অক্টোবর পৌরসভার মানবিক সহায়তা কমিটির সভা আহ্বান করা হয়। কিন্তু সংসদ সদস্য ঢাকায় থাকায় সভার তারিখ পরিবর্তন করা হয়। কিন্তু বুধবারের সভায় সংসদ সদস্যের পরিবর্তে তার একজন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। প্রতিনিধি প্রেরণেরও কোনো নীতিমালা নেই। তবে এ বিষয়ে গতরাত ১১টার দিকে দৈনিক মাথাভাঙ্গার পক্ষ থেকে মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য জয়নাল আবেদীনের মোবাইলফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এদিকে মেহেরপুর জেলায় ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৩৪ হাজার ৩১৯টি কার্ডের অনুকূলে ৩৪৩ দশমিক ১৯০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বলে জেলা প্রশাসকের ত্রাণ শাখাসূত্রে জানা গেছে। এর মধ্যে মেহেরপুর পৌর সভায় ৪ হাজার ৬২১টি কার্ডে ৪৬ দশমিক ২১০ মে.টন, গাংনী পৌসভায় ৩ হাজার ৮১টি কার্ডে ৩০ দশমিক ৮১০ মে.টন, সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ১২ হাজার ৯৩৯টি কার্ডে ১২৯ দশমিক ৩৯০ মে.টন, গাংনী উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ১৪ হাজার ২৪৪টি কার্ডে ১৪২ দশমিক ৪৪০ মে.টন এবং মুজিবনগর উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে ৭ হাজার ১৩৬টি কার্ডের অনুকূলে ৭১ দশমিক ৩৬০ মে.টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রত্যেক কার্ডধারী পাবেন ১০ কেজি করে চাল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here