মেহেরপুরে জামায়াত কর্মী আব্দুল জব্বার হত্যা বিষয়ে জামায়াতের বিবৃত্তি

মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি ইউপি মেম্বার হিজুলি গ্রামের জামায়াতকর্মী আব্দুল জব্বার মালিথা ওরফে জব্বার মেম্বারকে পুলিশ পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে বন্দুকযুদ্ধের নাটক সাজিয়েছে বলে দাবি করেছে মেহেরপুর জেলা জামায়াত। গতকাল বুধবার বিকেলে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি তারিক মহাম্মদ সাইফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এ দাবি সংবলিত প্রেসবিজ্ঞপ্তি মেহেরপুর জেলায় কর্মরত সাংবাদিক ও বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রেরণ করা হয়। হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয়েছে পুলিশ সুপারের বক্তব্যে জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল মতিনের নেতৃত্বে অস্ত্র প্রশিক্ষণের কথা বলা হয়েছে। আসলে বেশ কিছু দিন আগে থেকেই আব্দুল মতিন ও আমঝুপি ইউনিয়ন জামায়াতের সেক্রেটারি আব্দুল জব্বার জেলার বাইরে অবস্থান করছেন। তাদের বিরুদ্ধে এসব ষড়যন্ত্র। জামায়াত কোনো জঙ্গি সংগঠন নয়। তাই অস্ত্র প্রশিক্ষণ দেয়ার বিষয় আসতেই পারে না। বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও টেলিভিশনে এ ধরনের বক্তব্য দেখে রীতিমতো বিস্মিত হয়েছেন জামায়াত নেতৃবৃন্দ। প্রশাসেন বিবৃতি মিথ্যা দাবি করে জব্বার মেম্বারকে পুলিশ মধ্যযুগীয় কায়দায় শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে গুলি করে হত্যা নাটক সাজিয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। -প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *