মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হয়েও ফুটবলার ওহিদুলের ভাগ্যে জোটেনি সরকারি চাকরি

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হয়েও দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের মাঠ কাপানো ফুটবলার ওহিদুলের ভাগ্যে সরকারি চাকরি জোটেনি। খেলা থেকে অবসরে না গেলেও মনের কষ্টে এখন ঘরের মধ্যেই কাটে তার জীবন। বিভিন্ন অফিসে দেন দরবার করেও কোনো ফল হয়নি। বিভিন্ন মাঠে দারুন খেলা দেখিয়ে অর্জিত সার্টিফিকেট, মেডেল, ক্রেস্ট দেখিয়ে ওহিদুলের আক্ষেপ সারা জীবন তিনি কি বেকারই থেকে যাবেন।

ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ পৌর এলাকার বলিদাপাড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আমীন ওরফে কালাপাহাড়ের ছেলে ওহিদুল। ওহিদুল ইসলাম জানান, বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। চার ভাই ও এক বোনের সংসার। বাবা মোবারকগঞ্জ চিনিকলের একজন শ্রমিক ছিলেন।

অবসরে গেছেন বেশ কয়েক বছর আগে। সংসারে হাল ধরতে হবে তার। কিন্তু নেই কোনো কাজ। খেলাধুলার পেছনে সময় দিতে গিয়ে পড়াশুনা করতে পারেনি ঠিক মতো। অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন তিনি।  ফুটবলকে সাথে নিয়ে চষে বেড়িয়েছে সারা দেশে। দেশের এ মাথা থেকে ও মাথা পর্যন্ত গেছেন ফুলবল খেলতে। ২০০০ সালে  ২য় ঢাকা বিভাগ লিগে সেরা গোলদাতা তিনি, ২০০৫ সালে প্রথম বিভাগ ঢাকা লিগেও সে সেরা গোলদাতা হয়। তার ঝুলিতে রয়েছে অর্ধশতাধিক ক্রেস্ট, মেডেল ও সার্টিফিকেট। কিন্তু তার কপালে জোটেনি একটি চাকরি।

ওহিদুল ইসলাম জানান, এখন আর তেমন ফুটবল খেলতে পারি না। শারীরিকভাবে অসুস্থও হয়ে পড়েছি। সংসারের হালও ধরতে পারছি না।  তিনি আরো জানান, সরকার মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য অনেক সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে। অনেক মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সেই সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে। কিন্তু আমার কপালে জোটেনি। তাই সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের নিকট ওহিদুল দাবী জানিয়ে বলেছেন মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ছোটখাটো একটা সরকারি চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *