মিঠুন আর রনির ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

সন্তান হারা দু বোনের আর আসে না শারদীয় উৎসব : কেবলই কান্না

 

স্টাফ রিপোর্টার: মিঠুন আর রনি মাসতুতো ভাই। এরা আজ থেকে আট বছর আগে প্রতিমা বিসর্জন দিতে গিয়ে মাথাভাঙ্গা নদীতে ডুবে স্বর্গীয় হয়ে যায়। শূন্য হয়ে পড়ে দু ভাইয়ের দু মা। দু মায়ের ওই একটি করেই সন্তান ছিলো ওরা। প্রতি বছর আসে শারদীয় উৎসব। এ উৎসবের বাতাস লাগে না দু মা বিউটি সাহা ও জোসনা সিহির জানালায়। ঢাকের শব্দ যেন বাজে কান্নার মতো। তাই তো ওদের দিকে তাকানোই যায় না।

আট বছর আগে আজকের এই ১৪ অক্টোবরেই ছিলো বিজয়া দশমী। মাথাভাঙ্গা নদীতে ছিলো ঘোলা পানি নেমে যাওয়ার তীব্র স্রোত। মিঠুন ও রনি দু ভাই প্রতিমা বিসর্জনের জন্য অন্যদের সাথে নদীতে যায়। এক ভাইকে পানিতে পড়ে ডুবে যেতে দেখে তাকে বাঁচাতে মাসতুতো অপর ভাই ঝাঁপিয়ে পড়ে পানিতে। দু ভাই পানিতে ডুবে মারা যায়। দু ভাইয়ের দু মা কেমন আছেন? কেমন কাটছে পূজার দিনগুলো? গতকাল তা দেখতে মিঠুনের মা বিউটি সাহা খাটের ওপর মিঠুনের ছবিগুলো নিয়ে দেখছিলেন। আর নীরবেই ঝরাচ্ছিলেন অশ্রু। আর রনির মা জোসনা সিহিত চেয়ারে বসে অ্যালবামের ছবিগুলো দেখছিলেন আর গুমরে গুমরে কাঁদছিলেন।

জোসনা সিহি বললেন, এই আট বছর আমার আর পূজা আসে না, আসে না উৎসব। ছেলেকে হারিয়ে কোনো মা কি ভালো থাকতে পারে? মা হারা অন্য মায়েদের মতোই আমি না মরে কেবলই যেন বেঁচে আছি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *