মানব না দানব লি লিয়ন!

 

মাথাভাঙ্গা অনলাইন ঃ

সুইজ্যারল্যান্ডের বনে এক দশক ধরে ঘুরে বেড়াচ্ছে রহস্যময় একজন। সে আসলে মানব না দানব তা নিশ্চিত করা যায়নি।

প্রথমবারের মতো তার একটি ছবি প্রকাশ পেয়েছে। ছবিতে দেখা যায়,তার পরনে সামরিক বাহিনীর জলপাই রংয়ের পোশাক, একটি মোটা জোব্বা, মুখে তার গ্যাস মাস্ক।

অদ্ভুত চরিত্রের এ অধিকারী ‘লি লিয়ন’ নামে পরিচিত।

তার সঙ্গে কথা বলতে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছে সুইস পুলিশ। তাকে দেখে যেন কেউ ভয় না পায়, সে ব্যবস্থা করার চেষ্টায় আছেন সরকারি কর্মকর্তারা।

বছর দশক ধরে লি লিয়নের গল্প সুইজ্যারল্যান্ডের পশ্চিমাঞ্চলের মৌলেস বণাঞ্চলের আশপাশের স্থানীয়দের মুখে মুখে চলে আসছে।

গত মাসে সুইজারল্যান্ডের দৈনিক লে মাটিন একটি ছবি প্রকাশ করে। ছবিটিতে সামরিক পোশাক পরিহিত হেঁটে যেতে একজনকে দেখা যায়। তাকেই মনে করা হচ্ছে, লি লিয়ন হিসেবে। ধারণা করা হচ্ছে, এবারই প্রথম ক্যামেরায় ধরা পড়ে লি লিয়ন।

আলোকচিত্রী জানান, প্রায় ১২ মিটার দূর থেকে তিনি ছবিটি তোলেন। লম্বায় তিনি ১.৯০ মিটারের (৬.২৩ ফুটের বেশি) বেশি। বড় বড় চোখে ফিরে তাকালেন এবং নীরবে চলে গেলেন।

জানা যায়, গত বছরের জুনে লি লিয়নকে দেখতে পেয়েছিলেন এক স্থানীয়। ওই সময় লি লিয়নকে একগুচ্ছ ফুল তুলতে দেখেন তিনি।

ম্যারিয়ানে ডেসক্লাউক্স নামের ওই স্থানীয় লে মাটিনকে জানান, বসন্তে তার সাক্ষাৎ হয়েছিল। তিনি বলেন, ‘সেদিন ছিল রোববার, বৃষ্টি পড়ছিল। তার মাথায় টুপি, পরনে একটি কালো জোব্বা এবং মুখে গ্যাস মাস্ক।’

এছাড়া অনেকেই দাবি করেছেন, অদ্ভুত চেহারার মাধ্যমে তাদের সন্তানদের ভয় দেখিয়েছে লি লিয়ন। অনেক নারী বনে একা যেতে ভয় পান।

অনেকে বলেন, লি লিয়ন হতে পারেন মানসিকভাবে একজন অসুস্থ নারী, দৈত্যাকার এক মানব বা কর্দয ত্বক, সমস্যায় ভোগা কেউ।

আবার অনেকে বলেন, ইচ্ছা করেই বনবাস জীবন বেছে নিয়েছেন লি লিয়ন। তবে আসলে কী, সেটা এখনো জানা যায়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *