মহেশপুরে ছাত্রী শয্যাশায়ী : রহস্য মেয়াদোত্তীর্ণ টিটি ইনজেকশন

মহেশপুরে ছাত্রী শয্যাশায়ী : রহস্য মেয়াদোত্তীর্ণ টিটি ইনজেকশন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার পান্তাপাড়া ইউপির হুসোর খালী গ্রামের হতদরিদ্র কৃষক আইনালের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া কন্যা খাদিজা (১৩) শয্যাশায়ী। অথর দেহ নিয়ে বসে থাকতে দেখা যায় খাদিজাকে। খাদিজা জানায়, গত ১২ মার্চ বেলা ১১টার সময় ভোগের দাড়ি কমিউনিটি ক্লিনিকের কর্তব্যরত কর্মচারী রেজার পরিচালনায় মাহফুজ নামের স্বাস্থ্য কর্মী আমার শরীরে টিটি ইনজেকশন পুশ করে। পরদিন থেকে আমার হাতপা অবশ হতে শুরু করে। আমার দরিদ্র পিতা আমার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য আনিলে কর্তব্যরত ডাক্তার যশোরে রেফার্ড করে পরবর্তীতের ঢাকাতে নিয়ে চিকিৎসা করান। বর্তমানে আমি বাড়ীতে শয্যাশায়ী। আমার হাতপা অবশ হয়ে গেছে। আমার দরিদ্র পিতার চোখে মুখে হতাশার ছাপ।

এ ব্যাপারে খাদিজার পিতা আইনাল জানান, ক্লিনিকের কর্মরত রেজার অবহেলার কারণেই মেয়াদউত্তীর্ণ টিটি ইনজেকশনে আমার হাসিখুশি স্কুলপড়ুয়া কন্যা আজ শয্যাশায়ী। এ ব্যাপারে কমিউনিটি ক্লিনিকের রেজার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *