বুধবার দুপুরে কাবাঘরের কোন ছায়া ছিল না

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: মক্কারপবিত্র কাবা শরিফের সরাসরি ওপরে গতকাল বুধবার দুপুরে সূর্য অবস্থাননেয়ায় কাবাঘরের কোনো ছায়া ছিলো না। বহু মানুষ এ ঘটনা প্রত্যক্ষ করে।বাংলাদেশের স্থানীয় সময় অনুযায়ী দুপুর ৩টা ১৮ মিনিটে এ ঘটনাঘটে। এ সময় সূর্যের কেন্দ্রবিন্দুটি কাবা শরিফের ঠিক ওপরে উঠে আসে। ফলেদুপুরে কাবা শরীফের কোনো ছায়া ছিলো না।জেদ্দা অ্যাস্ট্রোনোমিক্যালসোসাইটি এক বিবৃতিতে আগেই সূর্য সরাসরি ওপরে আসার তথ্য জানিয়েছিলো।বিজ্ঞানীরা এ সময় সূর্যের দিকে খালি চোখে তাকাতে নিষেধ করেছিলেন।এমনঘটনা ঘটার কথা মহাকাশ বিজ্ঞানীরা আগেই জানিয়েছিলেন। মক্কা নগরীতে স্থানীয়সময় গতকাল বুধবার ভোর ৫টা ৩৮ মিনিটে সূর্যোদয় হয়। কাবার উত্তর-পূর্ব দিক থেকেসূর্য ধীরে ধীরে ওপরে উঠতে শুরু করে এবং দুপুর ১২টা ১৮ মিনিটে তা ঠিক কাবাশরিফের মাথায় উঠে আসে।এ কারণে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য পবিত্র এ ঘরের কোনোদিকে কোনো ছায়া ছিলো না। কাবা শরিফের জন্য সূর্যের এ অবস্থানকে ছায়াশূন্য (জিরো শ্যাডো) অবস্থা বলেই চিহ্নিত করেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। বছরে দুবারপবিত্র মক্কা নগরীর ক্ষেত্রে ঘটনাটি ঘটে।গবেষকরা জানান, পবিত্রকাবাঘরটি বিষুবরেখা ও কর্কটক্রান্তির মাঝখানে অবস্থিত হওয়ার কারণেই এমনটাঘটে। ২৮ মে ছাড়া প্রতি বছর ১৬ জুলাই তারিখেও একই ঘটনা ঘটে বলে জানান তারা।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *