বিয়ে করতে ব্যর্থ নুরুজ্জামান : অপহৃত স্কুলছাত্রীকে আলমডাঙ্গার গোয়ালবাড়ি থেকে কুমিল্লায় ফেরত

 

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: কুমিল্লার স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর আলমডাঙ্গার গোয়ালবাড়ি গ্রামে আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছে। অপহৃত স্কুলছাত্রীর মা এই অভিযোগ করেছেন। অপহরণ মামলা থেকে রেহাই পেতে অপহৃত পলিকে বিভিন্ন কাজির কাছে নিয়ে বিয়ের চেষ্টা করেছে অপহরণকারী নুরুজ্জামান। তবে পলির বয়স কম হওয়ায় কেউই বিয়ে পড়াতে রাজি হননি।

জানা গেছে, কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার হাসানপুর গ্রামের জামাল মিয়ার মেয়ে পলি ৯ম শ্রেণির ছাত্রী। তার সাথে মোবাইলফোনে পরিচয় হয় আলমডাঙ্গার গোয়ালবাড়ি গ্রামের আশরাফুল ওরফে বুড়োর ছেলে নুরুজ্জামানের। অভিযোগ রয়েছে গত বুধবার পলির স্কুল থেকে তাকে অপহরণ করে নুরুজ্জামান। পলিকে কয়েকটি স্থানে আটকে রাখা হয়। পরে আলমডাঙ্গার গোয়ালবাড়ি গ্রামের সহিদুলের বাড়িতে আটকে রেখে বিয়ের আয়োজন করা হয়। কিন্তু বয়স বাধা হয়ে দাঁড়ায়। বাড়াদী ইউনিয়নের কাজি হাফেজ ফারুক হোসেনের কাছে জানাতে চাইলে তিনি বলেন, নুরুজ্জামান ও তার ভগ্নিপতিসহ কয়েকজন এক কিশোরীকে বিয়ের জন্য নিয়ে আসে। কিন্তু অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় তাকে ফিরিয়ে দিই। জেহালা ইউনিয়নের কাজি আনোয়ার হোসেনও একই কথা জানান। তিনি বলেন, মেয়ে একেবারেই ছোট। শারীরিক গঠনই বলে দিচ্ছে মেয়েটি প্রাপ্ত বয়স্ক নয়। তাই বিয়ে না পড়িয়ে ফিরিয়ে দিই।

গোয়ালবাড়ি গ্রামের কেউ কেউ জানান, বিয়ে দিতে ব্যর্থ হয়ে নুরুজ্জামানের লোকজন পলিকে নিয়ে কুলিল্লার উদ্দেশে রওনা হয়েছে। কেউ কেউ বলেছে তাকে ঢাকায় নিয়ে ছেড়ে দেয়া হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *