বিয়ের দাবিতে শিক্ষকের বাড়িতে ছাত্রীর অনশন!

স্টাফ রিপোর্টার: টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি উপজেলার এক শিক্ষকের বাড়িতে বিয়েরদাবিতে অনশন শুরু করেছেন প্রেমে প্রতারিত তারই এক ছাত্রী। এলাকাবাসীজানান, উপজেলার ধনবাড়ি আলীম মাদরাসার ইংরেজি প্রভাষক আলমাস হোসেনের কাছেপ্রাইভেট পড়তো ওই মাদরাসারই আলিম প্রথম বর্ষের ছাত্রী সাথী আক্তার।প্রাইভেট পড়ানোর সময় তিনি সাথীকে নানাভাবে যৌনহয়রানি করতে থাকেন অভিযুক্ত শিক্ষক।একসময়সাথীকে বিয়ের প্রলোভন দেখায় ওই শিক্ষক। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমেরসম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিছুদিন পর তা দৈহিক সম্পর্কে রুপ নেয়। টানা দু বছর চলতেথাকে তাদের এ সম্পর্ক। কিছুদিন আগে সাথী ওই শিক্ষককে বিয়ের জন্য চাপ দিলেতাকে এড়িয়ে যাওয়া শুরু করেন আলমাস। প্রেমে প্রতারিত ওই ছাত্রী ২০ জুন এরপ্রতিকার চেয়ে মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা রুহুল আমীন মুরাদের নিকট একটিলিখিত অভিযোগ দেন। ২২ জুন মাদরাসা কর্তৃপক্ষ প্রভাষক আলমাস হোসেনকে শোকজকরেন। কিন্তু আলমাশ হোসেন শোকজের জবাব না দিয়ে গা ঢাকা দেন। এ অবস্থায়প্রেমে প্রতারিত ওই ছাত্রী গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে আলমাসের পাথালিয়া গ্রামের বাড়িতে গিয়েবিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করেছেন। এ সময় তাকে দেখার জন্য শ’ শ’ গ্রামবাসী ওইশিক্ষকের বাড়িতে ভিড় জমান। অনশনরত ছাত্রী সাথী আক্তার জানান, বিয়ের কথাবলে উনি (প্রভাষক আলমাস হোসেন) আমার সব কেড়ে নিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *