বিশ্ব টুকিটাকি : মৃত প্রেমিককে বিয়ে করলেন প্রেমিকা!

মৃত প্রেমিককে বিয়ে করলেন প্রেমিকা!
মাথাভাঙ্গা মনিটর: থাইল্যান্ডের এক প্রেমিকা তার প্রেমিককে বিয়ে করেছেন তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায়। চোখভরা জল নিয়ে এমন এক বিরল বিয়ের সাক্ষী হয়েছে একদল মানুষ। যেখানে বিয়ের পোশাকে প্রেমিকা বিয়ের আংটি পরালেন তার মৃত প্রেমিককে। বিয়ের পরই স্বামীর শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়। কান্নায় ভেঙে পড়লেন স্ত্রী। শপথ নিলেন এ জীবনটা শুধু তার জন্যই থাকলো। তবে থাইল্যান্ডের আইন অনুযায়ী এ বিয়ে স্বীকৃতি পাবে না। তবে মৃত প্রেমিককে বিয়ে করার ছবি দেখে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে দারুণভাবে স্বীকৃতি দেয়া হলো। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ বিয়ে চোখের জলে ভেজা সেলাম পেলো। সেই প্রেমিকার নাম নান থিপ্পাহারাট। তার প্রেমিক ফিয়াট হঠাৎ হার্ট অ্যাটাক হয়ে মারা যান। দুজনের বিয়ের কথা ঠিকঠাক ছিলো। মৃত এসেও অবশ্য চার হাতের মিলনকে রুখতে পারলো না। নান তার ফেসবুকে লিখলেন, আমি আমাদের বিয়ের কথা স্বপ্ন দেখতাম। স্বপ্নে দেখতাম আমি ওর হাতটা ধরে আছি। আমার স্বপ্ন সত্যি হলো। ফিয়াট তুমি খুব ভালো থাকো। ভালোবাসাকে জিতিয়ে দেয়ার এই চোখে জল এনে দেয়া বিয়েটা হলো মধ্য থাইল্যান্ডের চাচেওইংশোয়া প্রদেশে।

সতী নন কঙ্গনা রানাউত!
মাথাভাঙ্গা মনিটর: নিজের সম্পর্কে যা বললেন গ্যাংস্টার দিয়ে বলিউড মাতানো অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত তা শুনে সবার চোখ কপালেই ওঠার কথা। নিজেকে সতী নন বলে দাবি করেছেন ক্যুইন। সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে কঙ্গনা বলেছেন, আমি সতী-সাবিত্রী নই, হতেও চাই না। তিনি আরও বলেন, ভারতীয়রা এমনিতেই একটু বেশি সহানুভূতিশীল এবং সব সময়ই অনুনয়-বিনয়ের ওপর নির্ভরশীল। তাদের আরও বেশি দৃপ্ত, বলিষ্ঠ হয়ে উঠতে হবে ভভিষ্যতে। এতে তারা তাদের জীবনকে আরও ভাল ভাবে উপভোগ করতে পারবে।

জাপানে ৬ দশমিক ৭ মাত্রার ভূমিকম্প
মাথাভাঙ্গা মনিটর: জাপানের উত্তরাঞ্চলীয় হোক্কাইদো দ্বীপের উপকূলে ছয় দশমিক ৭ মাত্রার একটি ভূমিকম্প হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া সংস্থা। গতকাল বৃহস্পতিবার সাগরের তলদেশে হওয়া এই ভূমিকম্পের কারণে কোনো সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। দেশটির জাতীয় টেলিভিশন এনএইচকে জানায়, ভূমিকম্পের কারণে সমুদ্রপৃষ্ঠে অল্প কিছু পরিবর্তনের সম্ভাবনা থাকলেও সুনামিজনিত কোনো ক্ষয়ক্ষতি হবে না বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জাকার্তা হামলায়ও আইএস
মাথাভাঙ্গা মনিটর: ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় সন্ত্রাসী হামলায় মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি দল ইসলামিক স্টেট জড়িত বলে ধারণা করছে দেশটির পুলিশ। আইএস সংশ্লিষ্ট একটি ওয়েবসাইটেও জাকার্তা হামলার দায় স্বীকার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জাকার্তার কেন্দ্রস্থলে বোমা ফাটিয়ে গুলি চালিয়ে আত্মঘাতি এই হামলাকে ধরনের দিক দিয়ে তুলনা করা হচ্ছে দুই মাস আগের প্যারিস হামলার সাথে। এই হামলায় অন্তত দুজন বেসামরিক নাগরিক এবং ৫ হামলাকারী নিহত হয়েছেন। জাতিসংঘে কর্মরত এক ডাচ নাগরিকসহ আরও ২০ জন আহত হয়েছেন। নিহত বেসামরিক নাগরিকদের মধ্যে একজন কানাডার নাগরিক, অন্যজন ইন্দোনেশীয়। হামলাকারীদের দুজনের মৃত্যু হয়েছে আত্মঘাতী বোমায়। বাকি ৩ জন পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে। হামলার কেন্দ্র ছিলো জাকার্তার সারিনা শপিং মল মোড়, যা রাজধানী শহরের প্রধান বাণিজ্যিক এলাকা। কাছেই প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ, জাতিসংঘ ভবন এবং ইন্দোনেশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক। হামলা শুরুর পরপরই পুলিশ পুরো এলাকা ঘিরে ফেলে। এরপর চার ঘণ্টা হামলাকারীদের সাথে পুলিশের গোলাগুলি চলে।

তুরস্কে পুলিশ সদরদপ্তরে বোমা হামলায় নিহত ৬
মাথাভাঙ্গা মনিটর: তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় দিয়ারবাকির প্রদেশের সিনার জেলা পুলিশের সদরদফতরে এক গাড়িবোমা হামলায় ৬ জন নিহত হয়েছে। হামলায় আরো অন্তত ৩৯ জন আহত হয়েছে এবং কুর্দিরা হামলা চালিয়েছে বলে গতকাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন নিরাপত্তা কর্মকর্তারা। নিহতদের মধ্যে এক নারী ও একটি ‍শিশু রয়েছে বলে জানা গেছে। আরো হতাহতের খোঁজে ধ্বংসস্তূপে তল্লাশি চালাচ্ছেন উদ্ধারকারীরা। রয়টার্সের এক প্রত্যক্ষদর্শী ধ্বংসস্তুপ থেকে ৬টি মৃতদেহ টেনে বের করতে দেখেছেন। তুর্কি কর্মকর্তারা হামলার জন্য কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টিকে (পিকেকে) দায়ী করলেও শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। পিকেকে-র তৎপরতা মূলত তুরস্কের কুর্দি প্রধান দক্ষিণ-পূর্ব প্রদেশগুলোতেই সীমাবদ্ধ। পুলিশের দফতরের প্রবেশ পথে বোমাটির বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে বলে জানিয়েছে তুর্কি গণমাধ্যম। বিস্ফোরণে আশপাশের আবাসিক ভবনগুলোও ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে দিয়ারবাকির প্রদেশে পিকেকে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সাথে তুর্কি সেনাবাহিনীর প্রবল সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে।

সৌদি আরবে হামলার আহ্বান আল কায়েদা প্রধানের
মাথাভাঙ্গা মনিটর: আল কায়েদার ৪৩ সদস্যের মৃত্যুদণ্ডের প্রতিশোধ নিতে সৌদি আরব ও তার পশ্চিমা মিত্রদের ওপর হামলার আহ্বান জানিয়েছেন সংগঠনটির প্রধান আয়মান আল জাওয়াহি। মঙ্গলবার প্রকাশিত নতুন এক অডিও টেপে তিনি এ আহ্বান জানান বলে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক পর্যবেক্ষক প্রতিষ্ঠান সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রপ গতকাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছে। আল কায়েদার আন্তর্জাতিক শাখাও সোমবার হুঁশিয়ার করে বলেছে, ওই হত্যাকাণ্ডের জন্য সৌদি আরবকে মূল্য দিতে হবে। আল কায়েদার ওই ৪৩ সদস্য ছাড়াও একই দিন চার শিয়া মুসলিমের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে সৌদি আরব। এর মধ্যে শেখ নিমর আল নিমর নামের এক শিয়া নেতার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *