বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ

মাথাভাঙ্গা অনলাইন: সাভারের আশুলিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া এক ছাত্রীকে (২০) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ ও শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে।
খবর পেয়ে বুধবার সকালে নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে আশুলিয়া থানা পুলিশ।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রী জানান, ‘‘আমার গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা থানার বড়তলা গ্রামে। আমি রাজধানীর উত্তরা ইউনিভাসিটিতে এল,এল,বি তে পড়াশুনা করি। এই সুবাদে স্থানীয় ভিটিবাড়ি এলাকার জসিম উদ্দিনের  ছেলে সাইফুল ইসলামের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে সাইফুল আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে  শারীরিক সম্পর্ক করে।সাইফুলের পরিবার  অন্যত্র বিয়ে ঠিক করলে আমি সাইফুলকে বাধা দেই। বিয়ের কথা বলাতে সাইফুল আমাদের সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে এবং আমার ওপর নির্যাতন চালায়।’’

সাইফুল এলাকার কিছু লোকজনকে ম্যানেজ করে ওই ছাত্রীকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে স্থানীয় কবিরপুর এলাকার মৃত রিয়াজ উদ্দিন মোল্লার ছেলে আব্দুল হাইসহ  কয়েকজন যুবককে দিয়ে শারীরিক নির্যাতন করে এলাকা ছাড়ার হুমকি দেয়। খবর পেয়ে বুধবার সকালে আশুলিয়া থানা পুলিশ ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ বদরুল আলম জানান, ‘‘মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।’’

মেয়েটিকে শারীরিক নির্যাতন করার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আব্দুল হাইকে  আটক করে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি

Leave a comment

Your email address will not be published.