বিপাকে মেহেরপুরের সবজি চাষিরা : কপি এখন গো-খাদ্য

মাহসিন আলী/মাজেদুল হক মানিক: টানা অবরোধে বিপাকে পড়েছেন মেহেরপুরের সবজি চাষিরা। অবরোধের কারণে পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল করতে না পারায় জমিতেই নষ্ট হচ্ছে কৃষকের রক্তঘামে উৎপাদিত শাকসবজি। বাইরের জেলায় বাজারজাত করতে না পেরে প্রতিদিন ৪০-৫০ লাখ টাকা ক্ষতি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সবজি ব্যবসায়ীরা। এদিকে একই কারণে কাজ না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন জেলার শ্রমজীবীরা।

জানা গেছে, দেশের অন্যতম প্রধান সবজি উৎপাদনকারী জেলা মেহেরপুর। এখানে বছরের বেশির ভাগ সময় বিভিন্ন ধরনের সবজি আবাদ করা হয়। বর্তমানে শীতকালীন সবজি তোলার শেষ সময় চলছে। এখানে উৎপাদিত সবজি মেহেরপুর জেলা শহরসহ রাজধানী ঢাকা ও দেশের বিভিন্ন শহরে সরবরাহ করা হয়। কিন্তু ২০ দলীয় জোটের টানা অবরোধের কারণে পণ্যবাহী যানবাহন ঠিকঠাক চলাচল করতে পারছে না। ফলে ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, টমেটো, বেগুনসহ নানা জাতের শীতকালীন সবজি নিয়ে বিপাকে চাষিরা। অবরোধে যানবাহন চলাচল না করায় অনেকটা ক্রেতাশূন্য হয়ে পড়েছে জেলার পাইকারি বাজারগুলো। ফলে সবজিক্ষেতেই নষ্ট হচ্ছে। বেশির ভাগ কপিচাষি ক্ষেত ছেড়ে দিয়েছেন। কপি এখন গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে বলে জানালেন চাষিরা।

জেলার সবজির প্রধান গ্রাম সাহারবাটির চাষি তহসিন আলী জানান, অবরোধে ট্রাক মালিকরা ঢাকায় ভাড়া যেতে চাইছেন না। আবার যারা যেতে রাজি হচ্ছেন, তারা ভাড়া চান দ্বিগুণ। আগে যেখানে ট্রাক ভাড়া ছিলো ৭-৮ হাজার টাকা, এখন সেই ভাড়া ১৭-২০ হাজার টাকা। এতে সবজি বিক্রি করে ট্রাক ভাড়া পরিশোধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

এদিকে সবজি চাষিদের পাশাপাশি ক্ষতির মুখে পড়েছেন পাইকারি ব্যবসায়ীরাও। সাহারবাটি গ্রামের সবজি ব্যবসায়ী আব্দুল মজিদ জানান, তিনি ২০ বিঘা জমির ফুলকপি কিনেছিলেন। প্রথমে বেশ লাভ হলেও অবরোধের কারণে বড় ধরনের লোকসান গুনতে হচ্ছে। এ পর্যন্ত তার ৭ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের হিসাবমতে, মেহেরপুর জেলায় এবার শীতকালীন সবজির আবাদ হয়েছে প্রায় ৩ হাজার ২৮ হেক্টর জমিতে। এখন মাঠে রয়েছে ফুলকপি, বাঁধাকপি, টমেটো, পুঁইশাক, লালশাক, বেগুন ও আলুর মতো নানা জাতের সবজি।

টানা অবরোধের কারণে বিপাকে পড়েছেন সবজি ব্যবসার সাথে জড়িত শ্রমিকরাও। খেটে খাওয়া এসব মানুষ শহরে এসে কাজ না পেয়ে খালি হাতে ফিরে যাচ্ছেন। ফলে সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের। অনেকে আবার ঋণের জালে জড়িয়ে পড়ছেন।

মেহেরপুর তহবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবু হানিফ বলেন, অবরোধের কারণে প্রতিদিন বাজারে ৪০-৫০ লাখ টাকার ক্ষতি হচ্ছে। ফলে সাধারণ ব্যবসায়ীরা চরম ক্ষতির শিকার হচ্ছেন, যা পূরণ করা সম্ভব নয়। কৃষক ও কৃষি সংশ্লিষ্ট সবাইকে রক্ষায় রাজনৈতিক সংকট সমাধানের আহ্বান জানালেন এই ব্যবসায়ী নেতা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *