বিদেশের টুকরো

ভারতে যাত্রীবাহী ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ১০

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের উত্তর প্রদেশে যাত্রীবাহী একটি ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়াও এ ঘটনায় দেড় শতাধিক যাত্রী আহত হয়েছেন। খবর রয়টার্স ও  এনডিটিভি। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানী নয়া দিল্লি থেকে প্রায় ১শ কিলোমিটার উত্তরে মুজাফরনগরের খাওতালিতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ওড়িষ্যার পুরি থেকে ছেড়ে ট্রেনটি উত্তরখান্ডের হরিদ্বারের উদ্দেশে যাচ্ছিলো। ট্রেনটির ছয়টি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে।

দিল্লির পাঁচ তারকা হোটেলে নারী কর্মকর্তার বস্ত্রহরণ

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের দিল্লির একটি পাঁচ তারকা হোটেলের নির্বাহী এক নারীকে শাড়ি টেনে হেনস্তা করেছেন একই প্রতিষ্ঠানের আরেক কর্মকর্তা। গত ২৯ জুলাই দিল্লি এয়ারপোর্টের কাছের একটি হোটেলে এ ঘটনা ঘটে। ওই হোটেলের ক্লোজড সার্কিট টেলিভিশন (সিসিটিভি) ক্যামেরায় বিষয়টি ধরা পড়েছে। এ ঘটনার দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় পর বৃহস্পতিবার ৩৩ বছর বয়সী ওই নারীকে বরখাস্ত করেছে হোটেল কর্তৃপক্ষ। যে নিরাপত্তা ব্যবস্থাপক ওই নারীকে হেনস্তা করেন, তাকে এরই মধ্যে বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া ওই নারীর আরেক সহকর্মীকেও বরখাস্ত করা হয়েছে।
ওই নারীর অভিযোগ, হোটেলের নিরাপত্তা ব্যবস্থাপক বাড়ি ফেরার পথে তাকে দু’বার গাড়িতে তোলার চেষ্টা করেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার বেলা ১টার দিকে অফিসে গেলে দায়িত্বরত ব্যবস্থাপক তাকে মানবসম্পদ বিভাগে যোগাযোগ করতে বলেন।

ভারতে গরুর মৃত্যুতে বিজেপি নেতা গ্রেফতার

মাথাভাঙ্গা মনিটর: গো-রক্ষার নামে ভারতে সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক হারে স্বঘোষিত গো-রক্ষকদের দাপাদাপি বেড়ে গেছে। এর মধ্যে দেশটির কয়েক জায়গায় গরু ও গো-মাংস সংক্রান্ত ঘটনায় কয়েকজনকে পিটিয়ে হত্যাও করেছে উগ্র ধর্মান্ধরা। আর এক্ষেত্রে অভিযোগের তীর বরাবরই বিজেপি ঘেঁষা উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলোর দিকে যাচ্ছে। তবে এবার গরু কাণ্ডে বিপদে পড়েছেন খোদ বিজেপির এক নেতা। জানা গেছে, ছত্তীসগঢ়ের দুর্গে একটি গোশালায় গত তিনদিনে ‘অনাহার ও অপুষ্টিতে ২৭টি গরুর মৃত্যু হয়েছে। গোশালাটি স্থানীয় বিজেপি নেতা হরিশ বর্মার। ‘ছত্তীসগঢ় রাজ্য গো সেবা আয়োগ’ এর অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে বর্মাকে। অভিযোগে বলা হয়েছে, অনাহার ও অপুষ্টির জন্যই মারা গিয়েছে গরুগুলি। যদিও বর্মা দাবি করেন, গত ১৫ আগস্ট দেয়াল চাপা পড়ে মৃত্যু হয়েছে গরুগুলোর।

রিয়া সেনপ্রেগন্যান্ট’, ঘরোয়া আয়োজনে তাই চটজলদি বিয়ে

মাথাভাঙ্গা মনিটর: নামেই তার পরিচয়, তিনি সুচিত্রা সেন। তার মেয়ে মুনমুন সেনের দুই কন্যার মধ্যে রাইমা বড়, রিয়া সেন ছোট। সবার ধারণা ছিলো, রাইমা আগে বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন। তবে দীর্ঘদিন ধরে চলা সেসব গুঞ্জনের ইতি টেনে দিলেন রিয়া। চলতি মাসের শেষে দীর্ঘদিনের প্রেমিক শিবম তিওয়ারিকে বিয়ে করছেন রিয়া। কিন্তু চলতি মাসের শেষ পর্যন্ত সে প্রহর গড়ায়নি বরং ১৬ আগস্ট পুনেতে অনেকটা গোপনে শিবম তিওয়ারির সঙ্গে গাটছড়া বাঁধেন রিয়া। বিয়ের আয়োজনটা যে অনাড়ম্বরভাবে হয়েছে তা অবশ্য খুঁজে পাওয়া গেলো বড়বোন রাইমার ফেসবুকে প্রকাশিত ছবিতে। একসঙ্গে আটটি ছবি প্রকাশ করেছেন তিনি। শুধু ঘনিষ্ঠজনেরা উপস্থিত ছিলেন। তবে এমন চটজলদি ঘরোয়া আয়োজনে অনাড়ম্বরভাবে বিয়ে কেন করলেন রিয়া? স্বাভাবিক এই প্রশ্নটা ভক্তদের। ভারতীয় একাধিক সংবাদ মাধ্যম বলছে, বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন রিয়া। এ কারণেই তাড়াহুড়ো করে গোপনে বিয়ের কাজটি সেরে ফেললেন অভিনেত্রী রিয়া সেনা।

Leave a comment

Your email address will not be published.