বিডিআর হত্যা মামলার বিচারক বদল : বিস্মিত আইনজীবী

স্টাফ রিপোর্টার: বিডিআর হত্যা মামলার বিচারক বদল হয়েছে। ঢাকার তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ আখতারুজ্জামানের আদালতে মামলাটি স্থানান্তর হয়েছে। ৩০ অক্টোবর বহুল আলোচিত এ মামলায় রায় দেয়া হবে। তবে মামলার শেষ পর্যায়ে এসে আদালত বদল করা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন আইনজীবীরা। রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আদালত বদল হওয়ার ঘটনায় আমি দুঃখ পেয়েছি।’ বিডিআর হত্যামামলার বিচারের জন্য বকশীবাজারে ঢাকা আলিয়া মাদরাসামাঠে বিশেষ আদালত স্থাপন করা হয়। ওই আদালতে ২০১১ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে এ মামলার বিচার শুরু হয়। বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান ঢাকা মহানগর দায়রা জজ জহুরুল হক। তার আদালতেই ২০১১ সালের ১২ জুলাই হত্যা এবং অস্ত্র-বিস্ফোরক আইনে দুটি অভিযোগপত্র জমা দেয় তদন্তকারী সংস্থা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এতে ৮২৪ জনকে আসামি করা হয়। পরে অধিকতর তদন্তে আরও ২৬ জনকে অভিযুক্ত করে বর্ধিত অভিযোগপত্র দাখিল করে। এ নিয়ে আসামির সংখ্যা দাঁড়ায় ৮৫০। জহুরুল হক ২০১১ সালের ১০ আগস্ট এ মামলার অভিযোগ গঠন করেন। এরপর দু বছরের বেশি সময় ধরে মামলাটি পরিচালনা করেন। সাক্ষ্য গ্রহণও শেষ করেন তিনি। সর্বশেষ গত ১৬ সেপ্টেম্বর মামলাটি তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ আদালতে স্থানান্তর হয়। জানতে চাইলে মহানগর দায়রা জজ জহুরুল হক বলেন, একসাথে দুটি আদালত চালানো সম্ভব হচ্ছিলো না। বিডিআরের মামলাটি অনেক বড়। এতে বেশি সময় দিতে হয়। এ কারণে মামলাটি আমি স্থানান্তর করেছি।’ আসামিপক্ষের আইনজীবী ফারুক আহমেদ বলেন, হঠাত করে শুনতে পেলাম আদালত বদল হয়েছে। কেন, কী কারণে শেষ পর্যায়ে আদালত বদল করা হল তার কিছুই বুঝতে পারছি না। আসামিপক্ষের আরেক আইনজীবী আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘বিচারক যেই হোন না কেন, আমরা আশা করি ন্যায়বিচার পাবো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *