বাড়ির চারদিকে বেড়া দিয়ে আটকে গৃহবন্দি : লক্ষাধিক টাকা লুট : মারপিটে আহত তিন

 

আলুকদিয়া প্রতিনিধি: নিজের বাপের ভিটেয় থেকেও হারাতে হচ্ছে সব ধরনের সুযোগ। চাচা-চাচি আর চাচাতো ভাইদের হাতে নির্মমভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন রুইতন গ্রামের কামরুন্নাহার ও তার স্বামী শহিদ হোসের। তবে এজমালিকানা জমি নিয়েই এ গণ্ডগোলের সূত্রপাত।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা চিৎলা রইথনপুর গ্রামের ইব্রাহিম হোসেনের মেয়ে কামরুন্নাহরের ভিটার জমি জোরপূর্বক দখলের পাঁয়তারা করছে তার আপন চাচা-চাচি ও চাচাতো ভাইয়েরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে কামরুন্নাহারের চাচা হাসেম আলী, আলী হোসেন, চাচি নাজেরা খাতুন, চাচাতো ভাই নাজমুল, তাজমুল ও মফিজুল কামরুন্নাহারের বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে বলে তাতে রাজি না হলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সবাই মিলে কামরুন্নাহার তার স্বামী শহিদ ও মেয়ে মৌসুমীকে মারপিট করে। কামরুন্নাহার ও তার মেয়ে মৌসুমী স্থানীয় চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরলেও শহিদকে গুরুতর অবস্থায় চুয়াডাঙ্গা সদর হসপাতালে ভর্তি করোনো হয়। এ সময় চাচা-চাচি ও চাচাতো ভাইয়েরা তাদের বসবাসের ঘর, টিউবওয়েল ও মুদিদোকান ভেঙে তছনছ করে। এছাড়া প্রায় ১৫-১৬টি বিভিন্ন প্রকার গাছ কেটে ফেলেও ক্ষান্ত হয়নি। অবশেষে বাড়ি থেকে বের হওয়ার রাস্তাসহ পুরো বাড়ি রেলিং দিয়ে ঘিরে গৃহবন্দি করে রাখে।

কামরুন্নাহার রুইতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ও শহিদ হোসেন বিআরডিবির মাঠসহায়ক হিসেবে কর্মরত। গতকাল বেলা সোয়া তিনটার দিকে আলমডাঙ্গা থানার এসআই আনিস হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং প্রকৃত ঘটানা উদঘাটনের চেষ্টা করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *