বলেশ্বরপুরের কদম আলীকে মারধর ও টাকা কেড়ে নেয়ার ঘটনা মিথ্যা দাবি

স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার বলেশ্বরপুরের কদম আলীকে মারধর করে টাকা কেড়ে নেয়ার বিষয়টি মিথ্যা ও সাজানো বলে দাবি করেছেন এলাকার লোকজন। তারা বলেছেন, আজিম উদ্দিন ওরফে কদম আলী একজন এলাকার চিহ্নিত গরুচোর। সে গ্যাংগ্রুপ গঠন করে গরু চুরি করে। গত ১ জানুয়ারি সোনাতনপুরের ফকিরের একটি, ও ৪ জানুয়ারি বলেশ্বরপুরের গোলামের ৩টি ও সোন্যালের ছেলের একটি গরু চুরি করে। গরুগুলো গাংনীর বামন্দী হাটে বিক্রি করে। চোর শনাক্ত করার পর এলাকাবাসী বোয়ালমারী গ্রামের খুদের ছেলে ছানু, সাতগাড়ির গহর আলী খার ছেলে রশিদ চুরির সাথে জড়িত বলে জানতে পারে। তাদেরকে ধরে বলেশ্বরপুরে নেয়া হলে সালিসে তারা স্বীকার করে কদম আলী ও আরো কয়েকজনের সহযোগিতায় তারা গরুগুলো চুরি করে। সালিসে কদম আলীসহ আটক চোরদের মারধর করে গ্রামবাসী। কদম আলী ফঁসকে গিয়ে নিজে বাঁচার জন্য ছিনতাই নাটক সাজিয়ে পত্রিকায় প্রকাশ করেছে বলে ফকির মোহাম্মদসহ এলাকাবাসী দৈনিক মাথাভাঙ্গায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, আলমডাঙ্গার বলেশ্বরপুরে কদম আলীকে মারধর করে টাকা কেড়ে নেয়ার অভিযোগ শিরোনামে গত ৮ জানুয়ারি দৈনিক মাথাভাঙ্গায় একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। তাতে বিপুল, শিমুল ও ফকির মোহাম্মদকে ছিনতাইকারী হিসেবে কদম আলী অভিযুক্ত করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *