বন্দুকযুদ্ধের পর তিন দস্যু আটক

মাথাভাঙ্গা অনলাইন: সুন্দরবনে বনদস্যুদরে সঙ্গে কোস্টর্গাডরে ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়ছে।ে ঘটনাস্থল থকেে সাতটি আগ্নযে়াস্ত্র, ১০৭টি গুল,ি চারটি ধারালো অস্ত্র, একটি মাছ ধরার ট্রলারসহ জাহাঙ্গীর বাহনিীর তনি বনদস্যুকে আটক করার দাবি করছেে কোস্টর্গাড। এ সময় অপহৃত দুই জলেকেওে উদ্ধার করা হয়।

আটকরা হলনে- আমরি আলী (৩২), জব্বার (৩০) ও শাহজাহান (২৬)। তাদরে বস্তিারতি পরচিয় জানা যায়ন।ি

মংলা কোস্টর্গাড পশ্চমি জোনরে স্টাফ অফসিার লফেটন্যোন্ট কমান্ডার মহউিদ্দনি দাবি করনে, মঙ্গলবার বলো পৌনে তনিটা থকেে বুধবার ভোর পাঁচটা র্পযন্ত সুন্দরবন পশ্চমি বভিাগরে খুলনার কয়রা উপজলোর কাটশ্বের খাল এলাকায় এই ‘বন্দুকযুদ্ধরে’ ঘটনা ঘট।ে

মহউিদ্দনি মজুমদাররে ভাষ্য, গোপন সংবাদরে ভত্তিতিে কোস্টর্গাডরে একটি দল ওই এলাকায় অভযিানে যায়। তাদরে উপস্থতিি টরে পযে়ে বনদস্যু জাহাঙ্গীর বাহনিীর সদস্যরা গুলি ছোড়নে। এ সময় কোস্টগাডরে সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছোড়নে। বনদস্যুদরে সঙ্গে কোস্টর্গাডরে অন্তত ৩২টি গুলবিনিমিয় হয়ছে।ে একর্পযায়ে বনদস্যুরা পছিু হট।ে পরে কোস্টর্গাডরে সদস্যরা ওই এলাকায় তল্লাশি চালান। জাহাঙ্গীর বাহনিীর হাতে অপহৃত দুই জলেকেে উদ্ধার করে কোস্টর্গাড।
এ সময় জাহাঙ্গীর বাহনিীর তনি সদস্যকওে আটক করা হয়। অভযিান চালযি়ে তনিটি একনলা বন্দুক, দুটি এলজ,ি দুটি শটগান, ১০৭টি বন্দুকরে গুল,ি চারটি ধারালো অস্ত্র ও একটি মাছ ধরার ট্রলার উদ্ধার করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.