প্রধানমন্ত্রী দিনাজপুর সিটি কর্পোরেশন ঘোষনা না করায় সাধারন মানুষ হতাশ

মাহিদুল ইসলাম রিপন দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি ঃ

 

২২ অক্টোবর দিনাজপুর গোর-এ শহীদ ময়দানের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনাজপুর শহরকে সিটি করর্পোরেশনের ঘোষনা না দেওয়ায় সাধারন মানুষ হতাশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনাজপুরে এসে সিটি কর্পোরেশন ঘোষনা দেবে এমন খবর দেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পায়। দিনাজপুর শহর ও তার আশপাশ এলাকার সাধারন মানুষ অনেক আশা নিয়ে গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে জরো হয়। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী যখন সিটি কর্পোরেশন ঘোষনা না দিয়েই মঞ্চ থেকে নেমে আসলে সাধারন মানুষের মন দ্বীখন্ডিত হয়ে যায়।

২২ আগষ্ট দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হেলিকপ্টার যোগে দিনাজপুর বড় ময়দানে আসার পর মঞ্চে ভাষন দেওয়ার পূর্বে হাজি মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ড. এম এ ওয়াজেদ একাডেমি ভবন, দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মোহনপুর আত্রাই নদীতে ও বোচাঞ্জে টাঙ্গন নদীতে রাবার ড্যাম, বিরামপুর, বীরগঞ্জ, বিরল, হাকিমপুর, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গুলোকে ৩১ থেকে ৫১ শয্যায় উন্নীতকরণ, বোচাগঞ্জ আব্দুর রউফ চৌধুরী অডিটোরিয়াম, বিরল পৌরসভা ভবন, সেতাবগঞ্জ মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, দিনাজপুর মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, দিনাজপুর সরকারি কলেজ একাডেমিক কাম পরীক্ষা হল, আটগাঁও দাখিল মাদ্রাসা, রাজুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, হালজা উচ্চ বিদ্যালয় ও ওকড়া দাখিল মাদ্রাসার একাডেমিক ভবন, হাকিমপুর উপজেলা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, শহীদ আসাদুল্লাহ স্কোয়ার, বিরল মঙ্গলপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র, সম্মুখ সমর স্মৃতিস্তম্ভ, বীরগঞ্জের গাংগর ব্রীজ, কাহারোল উপজেলা মৎস ভবন, সেতাবগঞ্জ পৌরসভাকে খ থেকে ক শ্রেণীতে উন্নীতকরণ, কাঞ্চন থেকে বিরল বর্ডার পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার পর্যন্ত ট্রেন লাইনের মিটারগেজ থেকে ব্রডগেজ লাইন রুপান্তর বোচাগঞ্জ উপজেলা ডাক বাংলা ভবন সহ মোট জেলার বিভিন্ন স্থানের ৩৬টি প্রকল্প উদ্ভোদন করেন। জেলার বিভিন্ন স্থানের ৩৬টি প্রকল্প উদ্ভোদন করলেও দিনাজপুর বাসীর দীর্ঘ দিনের আশা সিটি কর্পোরেশন ঘোষনা না দিয়ে মঞ্চ ছেড়ে চলে যান। প্রধানমন্ত্রী ২০০৮ সালের পর ২২ আগষ্ট আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর প্রথম বারের মতো এসেও সাধারন মানুষের ইচ্ছে পূরণ করতে পারেনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *