প্রতারণার ফাঁদে টাকা ও সোনার গয়না খোয়ালো প্রতারিত এজারুল

দামুড়হুদার জগন্নাথপুরে প্রতারণার ফাঁদ : টাকা-পয়সা সোনা-দানা দ্বিগু করে দেয়ার প্রলোভন

দর্শনা অফিস/কার্পাসডাঙ্গা প্রতিনিধি: অজ্ঞাত স্থান থেকে মোবাইলফোনে নিজে জিনের বাদশা সেজে প্রতারণার ফাঁদ পেতে টাকা ও সোনার গয়না হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক। প্রতারকের ফাঁদে পড়ে রাতারাতি ধনী হওয়ার স্বপ্নে বিভোর এজারুলকে হতে হলো প্রতারিত। টাকা-পয়সা, সোনার গয়নাগাটি দ্বিগুন করে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে এজারুলের কাছ থেকে সব হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক জিনের বাদশা পরিচয়দানকারী। টাকা সোনার গয়না খুইয়ে সর্বশান্ত এজারুল পথে পথে খুঁজছে প্রতারককে। ঘটনাটি ঘটেছে দামুড়হুদার জগন্নাথপুরে।

জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার নতিপোতা ইউনিয়নের জগন্নাথপুর বাজারপাড়ার গোলাম রহমানের এজারুলের ব্যবহৃত ০১৭৮৬-২৩১৮০৪ মোবাইল নম্বরে মাসখানেক আগে অজ্ঞাত স্থান থেকে ০১৭৮০-৯৬৯৩৬২ নম্বরে নিজেকে জিনের বাদশা পরিচয়ে আলাপন শুরু করে। এক পর্যায়ে কথিত প্রতারক জিনের বাদশা টাকা-পয়সা, সোনা-দানা সব কিছু দ্বিগুন করার ক্ষমতা আছে বলে এজারুলকে জানায়। এ কথা শুনে এজারুল বিভিন্নভাবে কয়েকবারে ৫৪ হাজার টাকা দেয় ওই কথিত জিনের বাদশাকে। গত শুক্রবার ফের কথিত প্রতারক জিনের বাদশা মোবাইলফোনে এজারুলকে সোনার গয়নাগাটি নিয়ে ঢাকায় যেতে বলে। এজারুলকে আরো বলা হয় তার দেয়া ৫৪ হাজার টাকা দ্বিগুন করা হয়েছে। তাই গয়না-গাটি আনলে তা দ্বিগুন করে টাকা ও গয়না এক সাথেই দেয়া হবে। এ প্রলোভনে মরিয়া হয়ে ওঠে এজারুল। নিজের পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীদের কাছ থেকে সংগ্রহ করে প্রায় ২ ভরি সোনার গয়না। এ নিয়ে গত শনিবার সকালে ঢাকা পৌঁছুলে সায়েদাবাদ এলাকা থেকে প্রতারক জিনের বাদশা তা হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দেয়। এদিকে লোভে পড়ে টাকা পয়সা ও সোনার গয়নাগাটি খুঁইয়ে সর্বশান্ত হয়ে পড়েছে এজারুল। জিনের ফাঁদে পড়ে অনেকেই হচ্ছে সর্বশান্ত। তাই প্রতারকচক্র থেকে নিজে সতর্ক হোন পরিবার ও প্রতিবেশীদের সতর্ক হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছে সচেতনমহল।

Leave a comment

Your email address will not be published.