পিতামাতাকে হত্যার পর ‘রান্না’!

মাথাভাঙ্গা মনিটর: হংকংয়ে বয়স্ক এক দম্পতিকে হত্যার পর কেটে টুকরোটুকরো করেছে নরপশু এক পুত্র ও তার বন্ধু। তাদের বর্বরতা এখানেই শেষ হয়নি।পিতা-মাতার মৃতদেহ টুকরো করে লবণ দিয়ে রান্না করতে হাত কাঁপেনি পুত্রের।ঝলসানো শূকর মাংসের ন্যায় সেগুলোকে ভাতের সাথে লাঞ্চবক্সে ভরেছে তারা।হংকংয়ের একটি আদালতের এক শুনানিতে নৃশংসতার এ বর্ণনা সামনে আসে। ৬৫ বছর বয়সী চাউ উইং-কি এবং তার ৬২ বছর বয়সীস্ত্রী সিউ ইউয়েত-ইয়ি গত বছরের মার্চ মাসে খুন হন। নিখোঁজ হওয়ার কিছুদিনপর রক্তমাখা অ্যাপার্টমেন্টের দুটি রেফ্রিজারেটর থেকে তাদের কাটা মাথাউদ্ধার করা হয়। তাদের শরীরের বাকি অংশ উদ্ধার করা হয় একটি আবর্জনার বালতিথেকে। লাঞ্চবক্সে ভাতের সাথে তাদের শরীরের রান্না করা বাকি অংশ উদ্ধার করাহয়। রেফ্রিজারেটরে জায়গা না থাকায় ৩০ বছর বয়সী পুত্র হেনরি চাউ ও তারবন্ধু তাসে চুন-কেই এ কাজ করে। গতকাল বিচারের দ্বিতীয় দিন জনাকীর্ণ আদালতেশুনানিতে উপস্থিত ছিলো তারা। আইনজীবীরা বলছেন, বেশ কয়েক মাস আগে থেকেইপিতা-মাতাকে হত্যার পরিকল্পনা আঁটছিলো হেনরি ও তার বন্ধু। এজন্য তারা ছুরি,রেফ্রিজারেটর,মাইক্রোওয়েভ ওভেন ও রাইস কুকার কিনেছিলো।

Leave a comment

Your email address will not be published.