পশ্চিমতীর থেকে ১১ ফিলিস্তিনিকে ধরে নিয়ে গেছে ইসরাইল

 

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: পশ্চিম তীরের কয়েকটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১১ ফিলিস্তিনিকে ধরে নিয়ে গেছে ইসরাইল। এ সময় ইসরাইলি হামলায় কয়েক ফিলিস্তিনি আহত হন।স্থানীয়সংবাদ মাধ্যম ও নিরাপত্তা সূত্রে বলা হয়েছে,ইসরাইলি বাহিনী পশ্চিমতীরেরআল খলিল শহর থেকে ইব্রাহিম জাবেরকে গ্রেফতার করে। তিনি ২০১১ সালে বন্দিবিনিময় চুক্তির আওতায় ইসরাইলি কারাগার থেকে মুক্ত হয়েছিলেন।

এদিকেদুরা শহরের কয়েকটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আরেক সাবেক কারাবন্দীসহ আরো চারজনকে ধরে নিয়ে যায় ইহুদিবাদি সেনারা। অভিযানের সময় ইসরাইলি বাহিনী তাদেরওপর নির্যাতনও চালায়।ইসরাইলিবাহিনী জেনিন শহরের উত্তরে সিলাত আল-হারিথিয়া, কাফ্‌র দান এবং ফাক্কুয়াগ্রামে অভিযান চালিয়ে তিন ফিলিস্তিনিকে অপহরণ করেছে।নাবলুসশহরের দক্ষিণে যা’তারা নিরাপত্তা চৌকি থেকে ১৭ বছর বয়সী বেইরুত আলীমোহাম্মদকে ইসরাইলি বাহিনী ধরে নিয়ে যায়। কয়েক ঘণ্টা পর অবশ্য  ইসরাইলিবাহিনী তাকে ছেড়ে দেয় বলে জানা গেছে। তাছাড়া, বেথেলহেম জেলা ও বাকুয়াআশ-শারকিয়া থেকে দু জনকে ইসরাইলি বাহিনী ধরে নিয়ে যায়।

গত৮ জুলাই থেকে ইসরাইলি বাহিনী গাজায় বর্বরোচিত ও পাশবিক হামলা চালানোর পরথেকে পশ্চিম তীরে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। গাজায় ইসরাইলি বাহিনী ওহামাসের মধ্যে যখন ৭২ ঘণ্টার মানবিক যুদ্ধবিরতি চলছে তখন ১১ ফিলিস্তিনিঅপহৃত হওয়ার ঘটনা ঘটলো।২৯ দিনের আগ্রাসনে ইসরাইল গাজা উপত্যকায় নিরপরাধবেসামরিক লোকজনের ওপর গণহত্যা চালিয়েছে। এতে নিহত হয়েছেন প্রায় ১৯০০ফিলিস্তিনি এবং আহত হন ৯৫০০ মানুষ। এদের মধ্যে শিশু রয়েছে ৪০০ জন। এরবিপরীতে ইসরাইলি গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী-৬৪ সেনা নিহত ও ১৬২০ জন আহতহয়েছে। আর বেসামরিক নাগরিক মারা গেছে মাত্র তিনজন।

Leave a comment

Your email address will not be published.