নির্মম প্রতিশোধ!

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ১৬ বছর বয়সী কিশোরীকে প্রথমে ঘর থেকে টেনেহিঁচড়ে বের করে আনা হলো।এরপর বেধড়ক মারধর করে খুব কাছ থেকে অন্তত নয়টি গুলি করে হত্যা করা হলোতাকে। ভয়াবহ দৃশ্যটি দেখতে বাধ্য করা হলো কিশোরীর মা-বাবাকে।নির্মমএ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে গত সপ্তায় ভারতের আসামের চিরাং জেলায়। দিনের বেলায়তা ঘটিয়েছে নিষিদ্ধ সংগঠন ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট অব বোড়োল্যান্ডেরজঙ্গিরা।

নিহত কিশোরীর নামপ্রিয়া বসুমাতারি। সে পুলিশের গোপন তথ্যদাতা বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।হত্যাকাণ্ডের দিন নিষিদ্ধ ওই সংগঠনের পাঁচ সদস্যকে গুলি করে হত্যা হয়।জঙ্গিদের অভিযোগপ্রিয়া তাদের অবস্থান সম্পর্কে পুলিশকে তথ্য দিয়েছে। এর ‘প্রতিশোধ’ হিসেবেই ভারত-ভুটান সীমান্তবর্তী দুইমুগরি গ্রামে প্রিয়ারবাড়িতে গিয়ে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করে জঙ্গিরা।মেয়ের মৃত্যু দেখতে বাধ্য করতে ওই কিশোরীর মা-বাবাকে চোখ বন্ধ পর্যন্তকরতে দেয়া হয়নি। ঘটনাটা এতোটাই ভয়ঙ্কর ছিলো যে,দুই দিন স্থানীয় একটি মাঠেপড়ে ছিলো কিশোরীর মৃতদেহ। ভয়ে সত্কার করতে এগিয়ে আসার সাহস পায়নি কেউই।

পুলিশেরগোপন তথ্যদাতা মনে করে এমন হত্যাকাণ্ড ভারতে নতুন নয়। গত জুনে মেঘালয়েপুলিশকে তথ্য দেয়ার অভিযোগে এক নারীকে হত্যা করে জঙ্গিরা। পাঁচ সন্তানেরজননী ওই নারীকে তার সন্তান ও স্বামীর সামনে প্রথমে ধর্ষণ করা হয়। এরপর কাছথেকে ছয়টি গুলি করে হত্যা করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *