ধারের টাকা শোধ দিতে না পারায় নির্যাতন : চুয়াডাঙ্গা ইসলামপাড়ায় গৃহবধূর আত্মহত্যা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা ইসলামপাড়ার গৃহবধূ কমলা খাতুন আত্মহত্যা করেছেন। গতরাত সাড়ে ৮টার দিকে গলায় ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন। পাওনাদারের লোকজনের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন বলে এলাকার অনেকেই অভিযোগ করেছেন। আজ কমলা খাতুনের লাশের ময়নাতদন্ত হতে পারে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের ইসলামপাড়ার ফরজ আলীর স্ত্রী এক সন্তানের জননী কমলা খাতুন (২৬) বিভিন্ন এনজিও এবং সাধারণ কয়েকজনের কাছে ঋণগ্রস্ত। তিনি এসব ঋণ নিয়ে বাড়তি লাভের আশায় কতিপয় নারীকে টাকা দেন। ইসলামপাড়ার কয়েকজন জানান, এপাড়ার নওশাদের স্ত্রী সুখী খাতুন বেশ কিছুদিন আগে কমলা খাতুনের কাছ থেকে সুদে টাকা নেন। প্রায় এক লাখ টাকা নেয়ার পর দিন ১৫ আগে নিজের বাড়ি বিক্রি করে গোপনে সটকে পড়েন সুখী খাতুন। এতে বিপাকে পড়েন কমলা খাতুন। তিনি টাকা উদ্ধারের আশায় বিভিন্ন চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এদিকে কমলা খাতুনও তার প্রতিবেশী আঙ্গুরার কাছ থেকে কিছু টাকা নেন। এই টাকা শোধ দিতে না পারায় খুব মানসিক চাপে ছিলেন কমলা। গতকাল বুধবার বিকেলে কমলাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে আঙ্গুরা খাতুন ও তার লোকজন মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন বলে কেউ কেউ অভিযোগ করেন। অভিযোগকারীরা জানান, আঙ্গুরা খাতুনের বাড়িতে আটকে রেখে কমলাকে মারধর করা হয়। এ কারণে তিনি বাড়িতে ফিরে ঘরের আড়ায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন। এ ব্যাপারে নিহত কমলা খাতুনের স্বামী রিকশাচালক ফরজ আলী চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় অভিযোগ করেছেন। থানার ওসি তোজাম্মেল হক জানান, নিহত কমলার লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *