দৌলতদিয়ায় এখনো আটকে আছে ফেরি

মাথাভাঙ্গা অনলাইন: রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটের কাছে ডুবোচরে আটকে থাকা ফেরি কেরামত আলীকে আজ রোববার সকাল ১০টা পর্যন্ত উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এ কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল এখনো স্বাভাবিক হয়নি।

ফেরি চলাচল স্বাভাবিক না হওয়ায় দুই পাড়ে এখনো কয়েক শ গাড়ি আটকা পড়ে আছে। এর অধিকাংশই পণ্যবাহী ট্রাক।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা ইউনিটের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (মেরিন) আবদুল কুদ্দুস প্রথম ডটকমকে জানান, গত শুক্রবার সকালে ডুবোচরে আটকে যাওয়া ফেরি কেরামত আলীকে এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। শনিবার দুপুরের দিকে ফেরিটিকে উদ্ধার করতে গিয়ে বিআইডব্লিউটিসির উদ্ধারকারী জাহাজ আইটি-৩৮৯ ও বিআইডব্লিউটিএর শৈবাল বিকল হয়ে পড়ে। এখনো উদ্ধারকারী জাহাজ দুটি সচল হয়নি। মাওয়া থেকে একটি উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন উদ্ধারকারী জাহাজের সাহায্য চাওয়া হয়েছে। সেটি আজ দুপুরের মধ্যে পৌঁছার কথা। এটি পৌঁছানোর পরপরই উদ্ধারকাজ শুরু হবে।

ফেরির ওপর চাপ কমাতে আজ সকাল থেকে আগামী ৭২ ঘণ্টা দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলো থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী বাস ফেরি দিয়ে পারাপার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থা (বিআইডব্লিউটিসি) ও স্থানীয় পরিবহন মালিক সমিতি।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া কার্যালয়ের সহকারী ব্যবস্থাপক আবু আবদুল্লাহ জানান, শনিবার দুপুরের পর থেকে চ্যানেলে কোনো ফেরি আটকেনি। তবে মাত্র এক-তৃতীয়াংশ গাড়ি নিয়ে ফেরিগুলো খুবই সতর্কতার সঙ্গে চ্যানেল পারাপার হচ্ছে। এ ছাড়া মালিক সমিতির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ সকাল থেকে আগামী ৭২ ঘণ্টা দক্ষিণাঞ্চল থেকে আসা কোনো দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাস পার করবে না ফেরি।

বিআইডব্লিউটিএর খনন বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আতাহার আলী সরদার জানান, তীব্র স্রোতের কারণে খননকাজ ব্যাহত হচ্ছে। খননের পরপরই বালু মাটিতে চ্যানেল ভরাট হয়ে যাচ্ছে।

ডুবোচরে আটকে থাকা ফেরি উদ্ধারের ব্যাপারে আতাহার আলী সরদার বলেন, বিআইডব্লিউটিসির একটি শক্তিশালী উদ্ধারকারী জাহাজ সার্বক্ষণিক এই নৌপথে প্রস্তুত রাখা উচিত। বর্তমানে এই নৌপথে থাকা উদ্ধারকারী জাহাজগুলো খুবই দুর্বল।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *