দেশের টুকিটাকি : যশোরে হোটেল কর্মীকে ধর্ষণ করে হত্যা : নেপথ্যে ত্রিভুজ প্রেম

জঙ্গি দমনে পুলিশের আরও ইউনিট হচ্ছে : আইজিপি

স্টাফ রিপোর্টার: লিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক বলেছেন, দেশে জঙ্গিবাদ দমনে জাতীয় পর্যায়ে নতুন আরও একটি ইউনিট করা হচ্ছে। জঙ্গিবাদের ব্যাপকতা থাকায় জেলা পর্যায়েও জঙ্গিবাদ দমনে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট হচ্ছে। গতকাল শনিবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশ লাইনস মাঠে জেলা পুলিশের বার্ষিক সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইজিপি এসব কথা বলেন। আইজিপি বলেন, শতভাগ স্বচ্ছতা নিয়েই জঙ্গিবাদ দমন করা হচ্ছে। তাই দেশে জঙ্গিবাদ দমন প্রসঙ্গে প্রশ্ন তোলার কোনো সুযোগ নেই। প্রতিটি অভিযান পরিচালনার সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের সুযোগ দিয়ে থাকেন। আত্মীয়স্বজনের মাধ্যমেও জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের প্রস্তাব দেওয়া হয়। কিন্তু আত্মসমর্পণ না করে জঙ্গিরা যখন পুলিশের ওপর আত্মঘাতী হামলা করে, তখন আত্মরক্ষার্থে বাধ্য হয়েই পুলিশকে পাল্টা আক্রমণ করতে হয়।

 

যশোরে হোটেল কর্মীকে ধর্ষণ করে হত্যা : নেপথ্যে ত্রিভুজ প্রেম

স্টাফ রিপোর্টার: যশোরে ছায়া খাতুন (১৯) নামে এক হোটেল কর্মী ত্রিভুজ প্রেমের বলি হয়েছেন। তিন কিশোর পরিবহন শ্রমিক ধর্ষণের পর তাকে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। হত্যার ১২ দিন পর ওই তিন কিশোরকে আটকের পর র‌্যাব রহস্য উদঘাটন করেছে। ত্রিভুজ প্রেমের সূত্র ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে জড়িতরা স্বীকার করেছে। গতকাল শনিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার খোদাদাদ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। হত্যাকাণ্ডে জড়িত অভিযোগে আটককৃতরা হলো- যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার কড়াইতলা গ্রামের আকরামের ছেলে মফিজুর রহমান (১৪), সদরের সাবলাট গ্রামের আসাদুর রহমানের ছেলে মো. পারভেজ (১৫) ও ঝিকরগাছা উপজেলার ঝাউদিয়া গ্রামের আবদুর রহিমের ছেলে মো. আল আমিন সজিব (১৪)। এই তিনজনই যশোর-নড়াইল ও বাঘারপাড়া রুটে চলাচলকারী বাসের হেলপার। হত্যাকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার খোদাদাদ হোসেন জানান, ছায়া খাতুনের সাথে মফিজুর ও পারভেজের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। তারা শারীরিক সম্পর্কের দিকে এগোতে চেয়েছিলো। কিন্তু মেয়েটি রাজি না হওয়ায় তারা ধর্ষণ ও হত্যার পরিকল্পনা করে। অপর আসামি আল-আমিনও মেয়েটিকে পছন্দ করতো। সেও ওই পরিকল্পনার সাথে যুক্ত হয়।

উল্লেখ্য, শহরের নীলগঞ্জ তাঁতিপাড়া এলাকার নড়াইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বাবু খাবার হোটেলের তৃতীয়তলার একটি টিনশেড ঘর থেকে ছায়া খাতুনের লাশ উদ্ধার করা হয়। সে যশোরের শার্শা উপজেলার শ্যামলাগাছী গ্রামের ইমান আলীর মেয়ে।

 

কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে বিএনপির কর্মীসভায় হাতাহাতি

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে গতকাল শনিবার বরিশাল উত্তর জেলা শাখার দুই গ্রুপের মধ্যে চেয়ার ছোঁড়াছুড়ি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। দুই গ্রুপের চেয়ারে ছোঁড়াছুড়ির পর এক ঘণ্টা ওই সভা বন্ধ ছিলো। শনিবার সকাল ১০টায় নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হলে উত্তর জেলা বিএনপির কর্মীসভার পূর্বনির্ধারিত সময় থাকলেও দু ঘণ্টা পর শুরু হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। সভা শুরুর দিকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান এবং অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীনের সমর্থকদের মধ্যে তুমুল হট্টগোল বাধে। নিজেদের সমর্থকরা পরস্পর নেতার বিরুদ্ধে বিষোদগার করে নানা আপত্তিকর শ্লোগান দিতে থাকে। একপর্যায়ে উভয়ের সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি ও চেয়ার ছোঁড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে। পরে সিনিয়র নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার পর কর্মীসভা শুরু হয়। সভায় প্রধান অতিথি মির্জা আব্বাস বক্তব্যে বলেন, হত্যা-গুম, বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হামলা ও মামলা দিয়ে হয়রানির সমস্ত দেনা পাওনা বর্তমান সরকারকে দিতে হবে। সরকার সঠিক নির্বাচন কখনও দিবেনা, বর্তমান সরকার লুটপাটের সরকার। দেশে আইনের শাসন নেই বলেও মির্জা আব্বাস উল্লেখ করেন।

 

প্রতিবেশীর ট্রাঙ্কে শিশুর বস্তাবন্দি লাশ

স্টাফ রিপোর্টার: নাটোরের গুরুদাসপুরে চাঁচকৈড় বাজারপাড়া এলাকায় দৃষ্টি নামে আড়াই বছরের এক শিশুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রতিবেশীর ট্রাঙ্ক থেকে এ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, শুক্রবার দুপুর থেকে দৃষ্টিকে পাওয়া যাচ্ছিলো না। পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজির পর বিকেল ৫টার দিকে দৃষ্টির বাবা মোহন ঘোষ থানায় এ ব্যপারে জিডি করেন। পুলিশ শুক্রবার রাত থেকে প্রতিবেশীদের বাড়ি তল্লাশি করতে থাকে। গতকাল শনিবার বিকেলে তল্লাশি করতে গিয়ে প্রতিবেশী প্রদীপ কুমারের বাড়ির শয়ন ঘরের খাটের নিচে ট্রাঙ্ক থেকে বস্তাবন্দি ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় প্রদীপ কুমার (৩৫), তার স্ত্রী রিতা রানী (৩০), ছেলে হৃদয় (১৬), মেয়ে প্রীতি (৭) ও ছোট ভাই বজ্র গোপালসহ (২৩) ওই পরিবারের ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *