দেশের টুকরো খবর

মমতাকে শাড়ি-কবিতা ও চিঠি পাঠালেন এরশাদ

স্টাফ রিপোর্টার: বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য শাড়ি ও নিজের লেখা কবিতার বই শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে পাঠিয়েছেন জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ। কলকাতায় বসবাসকারী এরশাদের ভাতিজা আহসান হাবিব সম্প্রতি ঢাকায় এলে তার কাছে মমতার জন্য এই উপহার দেন তিনি। বিপুল বিজয়ে মমতাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সাথে একটি চিঠিও দিয়েছেন সাবেক এই রাষ্ট্রপতি। এছাড়া এরশাদ উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এবং তার বাল্যবন্ধু প্রয়াত কমল গুহের ছেলে উদয়ন গুহের বিজয়েও শুভেচ্ছা জানিয়ে উপহার পাঠিয়েছেন বলে জানা গেছে।

সুন্দরবনের মাস্টার বাহিনীর ১০ সদস্যের আত্মসমর্পণ

স্টাফ রিপোর্টার: সুন্দরবনের বনদস্যু মাস্টার বাহিনীর ১০ সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের উপস্থিতিতে তারা আত্মসমর্পণ করেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে বাগেরহাটে মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ইঞ্জিনিয়ারিং জেটিতে তারা আত্মসমর্পণ করেন। ৱ্যাবের কাছে অস্ত্র-গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পণকারী ১০ জনের মধ্যে সাতজনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন- বাহিনীর প্রধান মোস্তফা শেখ ওরফে মজিদ ওরফে কাদের মাস্টার (৪৭), সেকেন্ড ইন কমান্ড সোহাগ আকন (৩৭), ফজলু শেখ (৩৫), সোলায়মান শেখ (২৮), মো. শাহিন শেখ (২৮), সুমন সরকার (৩৪) ও মো. সুলতান খান (৫৮)। তাদের বাড়ি বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও খুলনার বিভিন্ন এলাকায়। তারা সবাই দস্যুতা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। ৱ্যাব ৮-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফরিদুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে হেলিকপ্টারযোগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল মংলায় এসে পৌঁছান। বিকেল ৩টার দিকে মাস্টার বাহিনীর ১০ সদস্য আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করেন।

এবার মাহির বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা!

স্টাফ রিপোর্টার: আদালতে বিয়ের কাবিননামা দাখিল করেছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির ‘কথিত’ স্বামী শাহরিয়ার শাওন। মঙ্গলবার বিকেলে আদালতে কাবিননামা পেশ করার পর শাওনের আইনজীবী বিল্লাল হোসেন জানিয়েছেন, এবার মাহির বিরুদ্ধে প্রতারণাসহ বেশ কয়েকটি মামলার প্রস্তুতি নিয়েছে শাওনের পরিবার। তবে শাওন জামিনে মুক্তি পেলেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। গত রোববার মাহির এই কথিত স্বামী শাওনকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। এরপর তাকে দুই দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। ডিবির জিজ্ঞাসাবাদে শাওন জানিয়েছেন মাহির সাথে তার পরিচয় স্কুলজীবন থেকে। তারা উত্তরায় একই স্কুলে লেখাপড়া করেছেন। মাহির সাথে তার প্রেম ছিলো বলেও দাবি করেছেন শাওন।

উল্লেখ্য, গত ২২ মে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার কদমতলী এলাকার ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে মাহির বিয়ে হয়। এরপর থেকে ওই যুবক ক্ষুব্ধ হন। তিনি মাহিকে স্ত্রী দাবি করে তার সঙ্গে তোলা অন্তরঙ্গ ছবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন। এরপর মাহি ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার ক্রাইম শাখায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

স্কুল কমিটির নির্বাচনেও গুলি!

স্টাফ রিপোর্টার: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার একটি বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গুলি চালানো হয়েছে। এতে অন্তত পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সোনাখালী মহব্বত আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে সোনাখালী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। অভিযোগ উঠেছে, ওই বিদ্যালয়ের বর্তমান কমিটির সভাপতি সিকদার মাহাবুবুর রহমান গুলি ছোড়েন। ওই নির্বাচনে তিনি সদস্য পদপ্রার্থী। পুলিশ দুপুরে মাহাবুবুর রহমান ও তার ছোট ভাই সিকদার মিজানুর রহমানকে একটি বৈধ বন্দুকসহ আটক করেছে। বিকেলে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী, এলাকাবাসী, পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানা গেছে, মাহাবুবুর রহমান ও সিকদার খলিলুর রহমান পরস্পর চাচাতো ভাই। তাঁদের মধ্যে এলাকায় প্রভাব বিস্তার নিয়ে বিরোধ রয়েছে। বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচনে মাহাবুবুর এবারও সদস্য প্রার্থী। তিনি স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। তার চাচাতো ভাই স্থানীয় ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান এই নির্বাচনে তার প্রতিপক্ষ প্যানেলকে নেপথ্যে সহযোগিতা করছিলেন বলে মাহাবুবুরের পক্ষের ধারণা। এই নির্বাচন ঘিরে এলাকায় উত্তেজনা চলছিলো। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সোনাখালী বাজারে মাহাবুবুর রহমানের প্রতিপক্ষ একদল গ্রামবাসী জটলা করছিলেন। এ সময় আকস্মিকভাবে মাহাবুবুর তার ছোট ভাই মিজানুরসহ সাত-আটজন সেখানে গিয়ে ওই জটলা লক্ষ্য করে গুলি ছোড়েন। এতে খলিলুর রহমানের দুই ছেলেসহ অন্তত সাতজন গুলিবিদ্ধ হন।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *