দেশের টুকরো খবর ২৬-০২-২০১৬

রিজার্ভ ২৮ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের পরিমাণ ২৮ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিন শেষে রিজার্ভের পরিমাণ ২৮ দশমিক ০৬ বিলিয়ন ডলার হয়। গত বুধবার এর পরিমাণ ছিলো ২৭ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক কাজী ছাইদুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেল ও খাদ্যপণ্যের দাম কমে আমদানি ব্যয় কমার পাশাপাশি রেমিটেন্স ও রফতানি প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পাওয়ায় এই নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। এর আগে গত ২৯ অক্টোবর দেশের বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয়ন প্রথমবারের মতো ২৭ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছিলো।
আগামী মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহে এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মেয়াদের আমদানি বিল পরিশোধের আগ পর্যন্ত রিজার্ভ ২৮ বিলিয়ন ডলারের উপরেই অবস্থান করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পাওনাদারের ধাওয়ায় পালাতে গিয়ে ঠিকাদারের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার: পাওনাদারের ধাওয়া খেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শাহজাহান ওমর (৩৭) নামের এক ঠিকাদার মারা গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এ ঘটনায় ধাওয়াকারী মামুন হোসেনকে (৩২) আটক করে রমনা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, শাহজাহান ওমর সচিবালয় ও সরকারি বিভিন্ন দফতরের ঠিকাদার হিসেবে থাই এলুমিনিয়ামের কাজ করতেন। ২০০৯ সালে তিনি একটি কাজের সাব-কন্টাক্ট দেন অপর ঠিকাদার মামুন হোসেনকে। এ কাজ বাবদ ওমরের কাছে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা পাওনা ছিলেন মামুন। ওমরকে খুঁজতে থাকেন মামুন। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় সচিবালয়ের ৫ নম্বর গেটের (প্রেসক্লাবের সংলগ্ন) কাছে ওমরকে পেয়ে ধাওয়া দেন মামুন হোসেন। ভয় পেয়ে ৫ নম্বর গেট দিয়ে সচিবালয়ে দৌঁড়ে পালান ওমর। কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যরা তার পিছু নিলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান ওমর। সচিবালয় ক্লিনিকে নেয়ার পর অবস্থার উন্নতি না হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। মৃত শাহজাহান ওমর রাজধানীর রমনার ওয়ালেস গেটের ছায়ানীড় এর ৫ম তলায় বসবাস করতেন। পাওনাদার মামুন হোসেনের রাজধানীর আরমানিটোলার ডিসি রায় রোডের ৩/১ নম্বর বাসায় থাকেন।

মার্কিন নাগরিকদের জন্য ফের ভ্রমণ সতর্কতা জারি

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ ভ্রমণের জন্য মার্কিন নাগরিকদের জন্য ফের সতর্কতা জারি করেছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সম্ভাব্য জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় এ সতর্কতা জারি করা হয়েছে বলে গতকাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। পঞ্চগড়ে এক হিন্দু পুরোহিত খুন হওয়ার পর নতুন করে এ সতর্কতা জারি করা হলো। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, এর আগে ভ্রমণ সতর্কতা ১০ নভেম্বর ২০‌১৫ পর্যন্ত বহাল রাখার কথা বলা হলেও এবার এর মেয়াদ ১ মে ২০১৬ পর্যন্ত বাড়ানো হচ্ছে। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানায়, গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশে দুই বিদেশি হত্যাসহ বেশ কয়েকবার আধুনিক সহিংস হামলার ঘটনা ঘটেছে। ইসলামিক স্টেট এসব হামলার দায় স্বীকার করেছে। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, বাংলাদেশে বড় ধরনের সন্ত্রাসবাদী হামলার বাস্তব এবং বিশ্বাসযোগ্য আশঙ্কা আছে বলে এখনো রিপোর্ট পাওয়া যাচ্ছে। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের এই সতর্ক বার্তায় বলা হয়, বাংলাদেশ সরকার জঙ্গিদের পাকড়াও এবং নিরাপত্তা জোরদার করার পদক্ষেপ নিয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশে কোনো মার্কিন নাগরিক এখনো আক্রান্ত হননি। তা সত্ত্বেও বাংলাদেশ ভ্রমণে মার্কিন নাগরিকদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

৫ তলা থেকে ফেলা দেয়া সেই শিশু অবশেষে মারা গেলো

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর বেইলি রোডে পাঁচতলা ভবন থেকে ফেলে দেয়া সেই শিশু ২৪ দিন চিকিত্সাধীন থেকে মারা গেল। রমনা থানার উপপরিদর্শক হুমায়ূন কবির জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা দেড়টার দিকে হাসপাতালের চিকিত্সকরা শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। এসআই হুমায়ূনই গত ৪ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গিয়েছিলেন শিশুটিকে। ভর্তির সময় হাসপাতালের খাতায় শিশুটির নাম লেখা হয়েছিল ‘বেবি অফ বিউটি’। ঠিকানার জায়গায় লেখা হয়েছিল উল্লাপাড়া, সিরাজগঞ্জ। হুমায়ূন বলেন, শিশুটিকে ভবন থেকে ফেলে দেবার পর তার পায়ে ইনজুরি হয়েছিলো। এছাড়া শরীরে ইন্টারনাল ইনজুরিও ছিলো। গত ১ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বেইলি রোডের একটি বহুতল ভবনের পঞ্চম তলা থেকে ওই নবজাতককে ফেলে দেয়া হয়। পরে পাশের একতলা বাড়ির ছাদ থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে রমনা থানা পুলিশ। শিশু উদ্ধারের পর বেইলি রোডের ওই বহুতল ভবনের পঞ্চম তলার ফ্ল্যাটে গিয়ে দুই গৃহকর্মীকে পায় পুলিশ। তাদের মধ্যে এক কিশোরী শিশুটির মা বলেও নিশ্চিত হন পুলিশ সদস্যরা। অসুস্থ অবস্থায় তাকে নিয়ে এসে রাখা হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে। ১৭ বছরের ওই কিশোরী সেদিনই সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ১০ মাস আগে তিনি কুমিল্লায় বোনের বাসায় বেড়াতে গিয়ে ভগ্নিপতির ধর্ষণের শিকার হন। গত ১০ ফেব্রুয়ারি ওই কিশোরী নিজেই বাদী হয়ে ভগ্নিপতি অজিত ওরফে নীরবকে আসামি করে মামলা করেন। এহাজারে বলা হয়, ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর তিনি গর্ভধারণ করেন। সামাজিক লজ্জার ভয়ে নবজাতককে বাড়ির বারান্দা থেকে ফেলে দিয়েছিলেন।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *