দামুড়াহুদার মদনায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে মা ও ছেলেকে মারধর

স্টাফ রিপোর্টার: দামুড়হুদার মদনায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে মা ও ছেলেকে মেরে আহত করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার তাদেরকে বাঁশ দিয়ে মেরে আহত করা হয়। আহতরা হলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা মদনা ইউনিয়নের ঝাঝাডাঙ্গা মাঝেরপাড়ার মৃত কাওছার আলীর স্ত্রী জায়দা বেগম ও তার ছেলে আলামিন। গতকাল মঙ্গলবার রাতে আহতাবস্থায় তাদেরকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে আলামিনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। এসময় হাসপাতালে আহতদের শয্যাপাশে থাকা পরিবারের অন্য সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, জায়দা বেগমের ছোট ছেলে ইটভাটা শ্রমিক রুহুল আমিনের কাছ থেকে ফুসলিয়ে গরু বিক্রির ৩৫ হাজার টাকা ধার নেয় জায়দা বেগমের ননদের জামাই কামাল। কামাল প্রভাবশালী হওয়ায় টাকার কথা অস্বীকার করে। সেই টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিলো। এরই একপর্যায়ে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রুহুল আলামিনকে চড়থাপ্পর মারে কামাল। রুহুল আলামিনের বড় ভাই আলামিনের প্রতিবাদ করায় তাকে বাঁশ দিয়ে মাথা ও শরীরে আঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। খবর পেয়ে জায়দা বেগম ঠেকাতে গেলে তাকেও বাঁশ দিয়ে মেরে আহত করা হয়। প্রতিবেশীরা আহতদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। এদিকে আলামিনের মাথার আঘাত গুরুতর হওয়ায় হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। আর্থিক সঙ্কটের কারণে গতরাতে আলামিনকে রাজশাহী নেয়া সম্ভব হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *