দামুড়হুদা জুড়ানপুরের বহিষ্কৃত কাজি মোখলেছের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে বিয়ে পড়ানোর অভিযোগ

 

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: বাল্যবিয়ে পড়ানোর অভিযোগে বহিষ্কৃত কাজি দামুড়হুদার জুড়ানপুর ইউনিয়নের মোখলেছুর রহমান প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই আবারও বিয়ে পড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বহিস্কৃত কাজী মোখলেছুর এলাকায় গোপনে বিয়ে পড়ালেও কাবিন দিতে না পারায় চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে কনের পরিবারের লোকজন। বিষয়টি দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার ভূক্তভোগী পরিবারের লোকজন।

জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার জুড়ানপুর ইউনিয়নের কাজী মোখলেছুর রহমান বাল্যবিয়ে পড়ানোর অভিযোগে প্রায় মাস ছয়েক আগে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে ১ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন। সেই সাথে তার দায়িত্ব থেকেও সাময়িক অব্যহতি দেয়া হয় এবং নতিপোতা ইউনিয়নের কাজী রবিউল ইসলামকে ওই ইউনিয়নের দায়িত্ব দেয়া হয়। বহিস্কৃত কাজী মোখলেছ কারাভোগ শেষে এলাকায় ফিরে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই আবারও শুরু করে বিয়ে পড়ানোর কাজ। তিনি গত ১২ অক্টোবর বিষ্ণুপুর দক্ষিণপাড়ার ঠাণ্ডুর মেয়ে লিমা খাতুনের বিয়ে পড়ান এবং ফিস বাবদ এক হাজার দুইশ টাকা দিতে বলেন। এ সময় মেয়ের পিতা স্লিপ চাইলেও অদ্যবধি তিনি ওই স্লিপ দেননি। একইভাবে এলাকায় বিভিন্ন গ্রামে বিয়ে পড়াচ্ছেন কিন্তু কোনো কাবিন দিচ্ছেনা বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে মেয়ের পিতা পড়েছেন মহা দু:চিন্তায়। এ বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত কাজী রবিউল ইসলাম বলেন, কাজী মোখলেছ পুনরায় দায়িত্ব পেয়েছে কী-না আমার জানা নেই। বিষয়টি খতিয়ে দেখে সংশ্লিষ্ট কাজীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন ভূক্তভোগী পিতা ঠাণ্ডু মিয়া।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *