দামুড়হুদা আ. ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজে সংবর্ধনা বরণ ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে এমপি টগর

কলেজের সার্বিক উন্নয়নে আমি ছিলাম আছি এবং থাকবো

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দেশ তথা জাতির বৃহত্তর স্বার্থেই শিক্ষার প্রতি সর্বাধিক গুরুত্ব দিতে হবে। কারণ শিক্ষা ছাড়া সমগ্র জাতির উন্নয়ন অসম্ভব। আর এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষার প্রতি অধিক গুরুত্ব দিয়েছেন এবং লেখাপড়া শেষে শিক্ষার্থীদের নিরাপদ কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে দামুড়হুদা আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজ চত্বরে বর্ণাঢ্য আয়োজন ও উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যদিয়ে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের এমপিকে সংবর্ধনা, নবাগত শিক্ষার্থীদের বরণ ও বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের এমপি আলী আজগার টগর উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। কলেজের অধ্যক্ষ কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি আরও বলেন, এ কলেজে আমি ৩২ লাখ টাকার ডেভেলপমেন্টের কাজসহ প্রায় অর্ধকোটি টাকার কাজ করেছি। বর্তমানে লেখাপড়ার মান মোটেও সন্তোষজনক নয়। কলেজের উন্নয়ন চাইবো আর লেখাপড়ার মান ভার হবে না এটা কারোরই কাম্য হতে পারে না। তিনি কলেজের শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা ছেলে-মেয়েদের ভালোভাবে লেখাপড়া শেখানোর ব্যবস্থা নেন আর কলেজের সার্বিক উন্নয়নে আমি ছিলাম, আছি এবং থাকবো। শুরুতেই প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিদের বরণের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়। প্রভাষক মিজানুর রহমান ও মিল্টন কুমার সাহার প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ জিন্নাত আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী শাহ, দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, সহসভাপতি রবিউল হোসেন, যুগ্মসম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান এসএএম জাকারিয়া আলম, দামুড়হুদা ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী শহিদুল ইসলাম, প্রেসক্লাব সভাপতি দীন মোহাম্মদ, আ.লীগ নেতা আলী মুনসুর বাবু, সাইফুল ইসলাম, আতিয়ার রহমান খাঁন, যুবলীগ নেতা সেলিম উদ্দিন খুশি, কলেজ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য মসলেম আলী মালিথা, ইমতিয়াজ হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজু আহম্মেদ রিংকু, দর্শনা পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম ববি প্রমুখ। অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন ২য় বর্ষের ছাত্রী লোপা। শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী সুরাইয়া সুলতানা মিষ্টি ও একাদশ শ্রেণির ছাত্র ইমরান হোসেন। আলোচনা শেষে প্রধান অতিথি বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে দিনের কর্মসূচি শেষ হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *