দামুড়হুদায় সীমানা পাঁচিল ছাড়াই মহাসড়কের ধারে পরিচালিত হচ্ছে ব্র্যাক মাধ্যমিক বিদ্যালয়

বখতিয়ার হোসেন বকুল: দামুড়হুদা উপজেলা শহরের মাদরাসাপাড়ায় দামুড়হুদা-দর্শনা মহাসড়কের ধারে ভাড়া বিল্ডিঙে গড়ে তোলা হয়েছে ব্র্যাক মাধ্যমিক বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি গত ১ জানুয়ারি থেকে পরিচালিত হয়ে এলেও অদ্যবধি কোনো সীমানা পাঁচিল নির্মাণ করা হয়নি।

জানা গেছে, বেসরকারি এনজিও সংস্থা ব্র্যাক ২০১৩ সালে সারাদেশে ৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা গ্রহণ করে। তারই ধারাবাহিকতায় দামুড়হুদা উপজেলা শহরের মাদরাসাপাড়ায় দামুড়হুদা-দর্শনা মহাসড়কের ধারে ২০১৩ সালের ১ জানুয়ারি বাণিজ্যিকভাবে গড়ে তোলা হয় ব্র্যাক মাধ্যমিক বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ে বর্তমানে মোট ৮৯ জন ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। এরমধ্যে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ৬৫ জন এবং ৭ম শ্রেণিতে ২৪ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যয়নরত আছে। বিদ্যালয়টি ৫জন শিক্ষক দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। এর মধ্যে একজন প্রধান শিক্ষক ও বাকি ৪ জন সহকারী শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। প্রতিমাসে ৫শ টাকা হারে ফিস নিলেও অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের মানষিক বিকাশের পাশপাশি শারিরীক বিকাশের জন্য’ খেলাধুলাসহ বিনোদনমূলক বিশেষ কোনো সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করেনি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিদ্যালয়ের সামনে মহাসড়কের ধারে করানো হয় অ্যাসেম্বলি।

এ বিষয়ে অভিভাবক দামুড়হুদা বাজারপাড়ার জহুরুল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয়টি ভাড়া বিল্ডিঙে হওয়ায় সমস্যা রয়েছে। ছোট একটা বেঞ্চে তিন ছাত্রকে অনেকটা গাদাগাদি করে বসতে হয়। নেই তেমন খেলার মাঠ। সবচেয়ে উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে সামনে কোনো সীমানা পাঁচিল না থাকা। আর এ সমস্যা সমাধানে ব্র্যাকেরই জরুরিভাবে উদ্যোগ নিতে হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *