দামুড়হুদায় শ্যালকের লাঠির আঘাতে দুলাভাই জখম

 

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদার হেমায়েতপুরে শ্যালকের লাঠির আঘাতে দুলাভাই লিটন (২৮) রক্তাক্ত জখম হয়েছেন। তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত লিটনের ভাই ডাবলু চারজনের বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা করেছেন।

জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার হেমায়েতপুর বেড়বাড়ি গ্রামের মৃত মতিয়ারের ছেলে দিনমজুর লিটন বুধবার বেলা ১১টার দিকে মাঠ থেকে ফিরে স্ত্রীকে ভাত দিতে বলেন। স্ত্রী বিউটি ভাত রান্না হয়নি বলে জানালে এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে লিটন স্ত্রীকে মারধর করেন। ঘটনার পর স্ত্রী বিউটি তার পিতার বাড়িতে (একইপাড়ায়) চলে যায় এবং বিষয়টি তার পিতা ও ভাইদের জানান। মেয়েকে মারধরের কথা শুনে তেলে বেগুনে জ্বলে ওঠেন পিতা আকসেদ আলী ও বিউটির তিন ভাই। আকসেদ তার তিন ছেলেকে সাথে নিয়ে ছুটে আসে লিটনের বাড়িতে। লিটন তার শ্বশুর ও শ্যালকদের লাঠি হাতে আসতে দেখে ভয়ে ঘরের খাঁটের নীচে লুকিয়ে পড়েন। আকসেদ ও তার ছেলেরা বাড়িতে ঢুকে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগালি করতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে তারা ঘরের জানালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে এবং লিটনকে খাটের নীচ থেকে টেনেহেঁচড়ে বের করে এনে বেদম মারপিট করে। এতে লিটন রক্তাক্ত জখম হয়। তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ বিষয়ে আহত লিটনের ভাই ডাবলু বাদী হয়ে বিউটির ভাই আমিরুল, মনি, খোকন, ও বিউটির পিতা আকসেদের বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *