দামুড়হুদায় শিক্ষকসহ দু জনকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে জখমের অভিযোগ

 

স্টাফ রিপোর্টার: দামুড়হুদায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে যুবদল নেতা বাচ্চু তার লোকজন দিয়ে শিক্ষক হযরত আলী ও তার ভাতিজা জিয়াকে লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জখম করেছে অভিযোগ উঠেছে। রডের আঘাতে জিয়ার ডান হাত ভেঙে গেছে। তাদের চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় দামুড়হুদা মডেল থানায় দু জনের নামে মামলা হয়েছে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ডে ওই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, দামুড়হুদা মাদরাসাপাড়ার বাসিন্দা নাটুদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হযরত আলী (৪৫) গতকাল বিকেলে দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ডের ওষুধ ব্যবসায়ী যুবদল নেতা মাহবুবুর রহমান বাচ্চুর দোকানে যায় এবং তুচ্ছ বিষয় নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে যুবদল নেতা বাচ্চু শিক্ষক হযরত আলীকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি দিতে থাকে। এ সময় শিক্ষক হযরত আলীর ভাতিজা জিয়া ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রতিবাদ করলে বাচ্চু তার দোকানের মধ্য থেকে লোহার রড বের করে এনে শিক্ষক হযরত ও ভাতিজা জিয়াকে এলোপাতাড়ি মারধর করে। রডের আঘাতে শিক্ষক হযরত আলী মারাত্মকভাবে আহত হন এবং জিয়ার ডান হাত ভেঙে যায়। তাদের চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় জিয়ার পিতা রবিউল হোসেন বাদী হয়ে দামুড়হুদা মডেল থানায় বাচ্চু ও তার ভাই রতনের নামে মামলা দায়ের করেন।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *