দামুড়হুদায় মরহুম আনছার আলী মাস্টারের স্মরণে শোকসভায় বাবু খাঁন

আনছার আলীর ভূমিকা ছিলো স্মরণীয় ও অনুকরণীয়

 

দামুড়হুদা অফিস: আনছার আলী মাস্টার শুধু জাতীয়তাবাদী শক্তির অগ্র সৈনিকই ছিলেন না, তিনি সুন্দর সমাজ গঠনে একজন নিবেদিত প্রাণ ছিলেন। তাকে হারিয়ে আমরা একজন অকৃত্রিম দেশ প্রেমিককে হারিয়েছি। তার অভাব পূরণ হবে না, তবে তার মতো করে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করে সুন্দর সমাজ গঠনে অবদান রাখতে পারলে সমাজ উপকৃত হবে। তিনি ছিলেন অনুকরণীয়।

দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি মরহুম আনছার আলী মাস্টারের স্মরণে শোকসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে উপরোক্ত মন্তব্য করেন যুবদলের কেন্দ্রীয় নেতা বাবু খান। গত শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে দামুড়হুদা থানা বিএনপির ব্রিজরোডের অস্থায়ী কার্যালয়ে বিএনপি নেতা তোফাজ্জেল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোকসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় যুবদলের শিল্প বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদ হাসান খান বাবু। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, মরহুম আনছার আলী মাস্টার ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী শক্তির একজন নিবেদিত প্রাণ। বিগত দিনের যে কোনো আন্দোলন কর্মসূচিতে আনছার আলীর ভূমিকা ছিলো স্মরণীয় ও অনুকরণীয়। তাকে অনুসরণ করে বর্তমান জুলুমবাজ সরকারের বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের যুগ্মআহবায়ক মোকাররম হোসেনের সঞ্চালনায় শোকসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হবি, জেলা শ্রমিকদল সভাপতি এম. জেনারেল ইসলাম, দামুড়হুদা ১৮ দলীয় সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক উপজেলা বিএনপির সভাপতি লিয়াকত আলী শাহ, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি বিএনপি নেতা অ্যাড. এমএম শাহজাহান মুকুল, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. শামীম রেজা ডালিম, থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল হাসান তনু, জীবননগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খান খোকন, বিএনপি নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আহম্মদ আলী, দামুড়হুদা ইউনিয়ন জামায়াতের আমির প্রভাষক শরীফুল আলম মিল্টন, কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম, দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আ. রহমান মালিথা, সাধারণ সম্পাদক ইকরামুল হক, নতিপোতা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামরুজ্জামান টুনু, কুড়ুলগাছি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আতিয়ার রহমান ও হাউলী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আ. ওয়াহেদ। উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা রবিউল হোসেন শুকলাল, শফিউল্লাহ, ইসমাইল হোসেন, একরামুল মেম্বার, ইছাহক আলী, আলেফ খা, আ. হালিম হেলু, জামায়াত নেতা আবুল বাসার, যুবদল নেতা প্রভাষক আবুল হাশেম, আ. রহিম, মন্টু মিয়া, শামসুল, তোতাম, সজল, ছাত্রদল নেতা মাহফুজুর রহমান মিল্টন, আরিফুল ইসলাম আরিফ, তাজ আলম, সাজু, আরিফ, রানাসহ বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের হাজারো নেতাকর্মীবৃন্দ। শোকসভা শেষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন হাফেজ মো. কামরুজ্জামান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *