দামুড়হুদার রামনগর-কলাবাড়ি মাঠ থেকে উদ্ধর হওয়া তরুণীর লাশের পরিচয় এক বছরেও মেলেনি

 

সাইদুর রহমান: দামুড়হুদা রামনগর-কলাবাড়ি বেনাগাড়ি মাঠে উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত তরুণীর লাশের পরিচয় এক বছরেও পরিচয় মেলেনি। অজ্ঞাতনামা তরুণীকে ধর্ষণ শেষে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরদিন সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালমর্গে পাঠায়। লাশের পরিচয় না মেলায় অজ্ঞাত হিসেবে দাফন করা হয়।

উল্লেখ্য, কলাবাড়ি-রামনগর ব্যানাগাড়ি মেঠেলমাঠে ধানক্ষেতের পাশে কলাবাড়ি গ্রামের শরিফউদ্দিনের জমির পশ্চিমপাশে ওই তরুণীর ওড়না দিয়ে হাত ও মুখ বাঁধা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করা হয়। তার পরনে ছিলো কালো রঙের বোরকা, কালো পাজামা, আকাশি রঙের থ্রিপিচ, হলুদ ও আকাশি রঙের ওড়না, পাশে পড়েছিলো ভ্যানিটিব্যাগ। কলাবাড়ি গ্রামের মসলেম আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেন তার ধানক্ষেত দেখে ফেরার পথে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ দেখে এলাকাবাসীকে খবর দেয়। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। কেউ কেউ মন্তব্য করতে গিয়ে বলে মোবাইলে প্রেমের টানে এলাকায় এসে প্রতারণার ফাঁদে পড়ে ধর্ষণের পর হত্যার শিকার হয়ে থাকতে পারে। আবার কেউ কেউ বলেন, এলাকার অজ্ঞাত কারও স্ত্রী হতে পারে বিয়ের বিষয় গোপন করতেই এ হত্যাকাণ্ড ঘটাতে পারে। অনেকে বলে ভ্রাম্যমাণ পতিতাও হতে পারে টাকা পয়সা লেনদেন নিয়ে বিরোধের এক পর্যায়ে হত্যার মতো এ ধরনের ঘটনাও ঘটাতে পারে। এ বিষয়ে দামুড়হুদা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জানান, পুলিশ তৎপর রয়েছে। হত্যা ঘটনা উদঘাটনের জন্য  অজ্ঞাত তরুণীর লাশের ছবি বিভিন্ন থানায় প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *