দামুড়হুদার জয়রামপুরে প্রতিবেশীর ধারালো অস্ত্রের কোপে গৃহবধূ জখম

 

স্টাফ রিপোর্টার: দামুড়হুদার জয়রামপুরে এক নারীকে উপর্যুপরি কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় প্রতিবেশী হাবুর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে জখম হন নাছিমা খাতুন নামের এক গৃহবধূ। গত সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তাকে কুপিয়ে জখম করা হয়। জখম নাছিমাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নাছিমা খাতুন জয়রামপুর বাড়ুইপাড়ার গোলজারের স্ত্রী এবং একই গ্রামের মৃত আব্দুল গনির মেয়ে। নাছিমা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, গত দু বছর ধরে প্রতিবেশী মৃত খবির উদ্দিনের ছেলে হাবু একা পেয়ে বিভিন্ন সময় আমাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। এ নিয়ে গত ৬ মাস আগে হাবুর নামে চুয়াডাঙ্গা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করা হয়। কিছুদিন পর হাবু গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে আমাকে উত্ত্যক্ত না করার শর্তে  মুচলেকা দেয়। কয়েকমাস যেতে না যেতে হাবু আবারও আমাকে উত্ত্যক্ত করে এবং কুপ্রস্তাব দিতে থাকে। গতপরশু সোমবার সকালে নাছিমা তাদের বাড়ির সামনে ভুট্টা শুকানোর কাজে ব্যস্ত ছিলেন। এ সময় হাবু আপত্তিকর অঙ্গভঙ্গি করে নাছিমাকে দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করে। বিষয়টি নাছিমা গণ্যমান্য লোকজনকে জানায়। বিষয়টি জানাজানি হলে হাবু ক্ষুব্ধ হয় এবং হুমকি ধামকি দিতে থাকে। ওই দিনই সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নাছিমা বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় প্রতিবেশী হাবু ধারালো অস্ত্র নিয়ে নাছিমার ওপর হামলা চালায়। তার সমস্ত শরীরে উপর্যুপরি কুপিয়ে জখম করা হয়। তাকে ওই রাতেই চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *