দর্শনা আকন্দবাড়িয়ায় লোকজ ও বাউল উৎসবের সমাপনীসভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার

 

অপসংস্কৃতি রুখতে প্রাণে লালন করতে হবে বাঙালি সংস্কৃতি

হারুন রাজু: প্রতি বছরের মতো এ বছরও দর্শনার পার্শ্ববর্তী আকন্দবাড়িয়া নতুনপাড়া কেরুজমাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে তিনদিনব্যাপি লোকজ ও বাউল উৎসব। প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে মেলার শুরুটা তেমন জমে না উঠলেও শেষদিন ছিলো জাঁকজমকপূর্ণ। দর্শনার্থীদের ভিড় ছিলো চোখে পড়ার মতো। ১৪তম লোকজ ও বাউল উৎসবের প্রতিদিনের আয়োজনে মধ্যে ছিলো আলোচনাসভা ও সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা। গতকাল সোমবার ছিলো উৎসবের শেষ দিন। সন্ধ্যায় সমাপনী আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে চুয়াডাঙ্গা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালেহ উদ্দিন বলেন, বাংলার হাজার বছরের লালিত সুর ও সঙ্গীত আজও হৃদয়ে দাগ কাটে। মাটির গন্ধে ভরা এ গান ভোলা যায় না কখনো। বাংলার আদি সংস্কৃতি আজ হারিয়ে যেতে বসেছে বিজাতীয় ও আকাশ সংস্কৃতির কারণে। তাই এ ধরনের আয়োজনের মধ্যদিয়ে সুস্থ সাংস্কৃতিক ধারাকে বজায় রেখে অপসংস্কৃতি রুখতে প্রাণে লালন করতে হবে বাঙালি সংস্কৃতি। ইস্রাফিল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আলোচনা করেন, কেরুজ শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি হাফিজুল ইসলাম হাফিজ, শিল্পী মামুন আহম্মেদ, চুয়াডাঙ্গা গোয়েন্দা পুলিশের ইনচার্জ এসআই আব্দুল বারীক, দর্শনা আইসি ইনচার্জ এসআই মিজানুর রহমান, আরওপিএসআই জিয়াউর রহমান, এএসআই আশরাফুল ইসলাম আশরাফ, সাংবাদিক হানিফ মণ্ডল, মনিরুজ্জামান মনির, মেলার আয়োজক ধীরু বাউল প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন সাংবাদিক রেজাউল করিম লিটন। আলোচনা শেষে সঙ্গীত পরিবেশন করে দর্শক শ্রোতাদের মাতিয়ে তোলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালেহ উদ্দিন, মামুন, বারীক, হানিফ মণ্ডল ও ট্যালেন্ট হান্ট টপটেন ধীরু বাউল। শেষে নসিমন যাত্রাপালা মঞ্চস্থ হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *