দর্শনায় আ.লীগের মতবিনিময় ও প্রতিনিধি সমাবেশে এমপি আলী আজগার টগর

0
41

বিএনপি-জামায়াতের তাণ্ডব রুখতে সংগ্রাম পরিষদ গড়ে তুলতে হবে

 

দর্শনা অফিস: বিএনপি, যুদ্ধাপরাধী জামায়াত-শিবিরের দেশব্যাপি তাণ্ডব, নৈরাজ্য ও ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড এবং ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে আমাদের করণীয় শীর্ষক মতবিনিময় ও প্রতিনিধিসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সভার আয়োজন করেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর। নির্বাচনী এলাকার দলীয় নেতাকর্মীদের সতঃস্ফুর্ত উপস্থিতিতে গতকাল সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত দর্শনা অডিটেরিয়াম কাম কমিউনিটি সেন্টারে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আয়োজক চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি অবিসাংবাদিত নেতা বাংলাদেশের স্থপতি, বাঙালি জাতির পথ প্রদর্শক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এ দেশের আপামর জনতার নিরঙ্কুশ রায় পেয়ে সরকার শুরু করে দেশজুড়ে উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে। যা দেখে শুরু থেকেই চক্ষুশুল হয়ে পড়ে বিএনপি-জামায়াতসহ ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের। সরকারের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে দেশে বারবার সৃষ্টি করেছে অরাজকতা। বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের দুঃশাসনের আমলে নির্যাতন, নিপীড়ন, সন্ত্রাস, লুটতরাজসহ অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের রাজত্ব কায়েম করেছিলো বলেই বাংলাদেশের মানুষ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। আমরা তাদের মতো কুকর্ম করে নিন্দিত হইনি। জনগণকে সাথে নিয়ে ভালো কাজ করে হয়েছি জননন্দিত। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সোনার বাংলা গড়তে যে কর্ম পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছিলো আজ তা সফলতায় রূপ নিয়েছে। সাম্প্রদায়িকতার ধুয়া তুলে ধর্মের দোহাই দিয়ে ৭১’র পরাজিত অপশক্তি জামায়াত-শিবির দেশকে অস্থিতিশীলতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তারা স্বাধীনতার দীর্ঘ ৪১ বছর পরেও নির্বিচারে মানুষ হত্যা, বোমাবাজিসহ নানা অপকর্ম চালিয়ে দেশের উন্নয়নকে বিঘ্নিত করার অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। যারা এখনো বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেয়ার চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে আমি তাদের স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, আমরা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবরের আদর্শে গড়া সৈনিক। ৩০ লাখ শহীদ ও অসংখ্য মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে পাওয়া জাতীয় পতাকা খামচে ধরার চেষ্টা করছে ৭১’র পরাজিত শক্তি। জাতীয় পতাকার মান অক্ষুন্ন রাখতে এ দেশের সংগ্রামী জনতা তাদের অপশক্তিকে আবারো রুখে দেবে আ.লীগকে পুনরায় সরকার গঠনের মধ্যদিয়ে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ওই সব পাকিস্তানি দালালদের চিহ্নিত করে তাদেরকে শক্ত হাতে প্রতিহত করতে হবে। তাই আসুন আর বসে থাকার সময় নেই। বিএনপি-জামায়াতের তাণ্ডব রুখতে গ্রাম-মহল্লায় সংগ্রাম পরিষদ গড়ে তুলি। দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টুর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জীবননগর উপজেলা চেয়ারম্যান উপজেলা আ.লীগের সভাপতি গোলাম মর্তূজা, দর্শনা পৌর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান, দর্শনা পৌর আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম, উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, দামুড়হুদা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. রফিকুল ইসলাম রান্টু ও জীবননগর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান। দামুড়হুদার পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলমের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন আ.লীগ নেতা খলিলুর রহমান ভুট্টো, শহিদুল ইসলাম, মোমিন মাস্টার, আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর আলম, আ. হান্নান, আবু সাঈদ খোকন, সোহরাব হোসেন খান, নজির আহম্মেদ, আলী হোসেন মাস্টার, তাহাজ্জত হোসেন, সোহরাব হোসেন, আব্দুল কাদের প্রধান, আলতাব হোসেন, শফিকুল ইসলাম মুক্তার, আয়েশা সুলতানা লাকি, শুকুর আলী, মুনতাজ আলী।  উপস্থিত ছিলেন বরকত আলী, মোমিনুল ইসলাম, মোজাহারুল ইসলাম, আব্দুল রফিক কাবি, মোশাররফ হোসেন, উসমান গণি, ইনু শাহ, সাবেক যুবলীগ নেতা কাজল আহম্মেদ, যুবলীগ নেতা শফিউল কবির ইউসুফ, আবু তালেব, আব্দুল হান্নান ছোট, হযরত আলী, সেলিম উদ্দিন বগা, আজিজুর রহমান বাবু, শেখ আসলাম আলী তোতা, আশরাফুল আলম বাবু, জয়নাল আবেদীন নফর, ইকবাল হোসেন, সাইফুল ইসলাম হুকুম, একে আজাদ কিরণ, হাবিবুর রহমান মিলন, মামুন শাহ, সোলায়মান কবির, আব্দুস সালাম ইশা, আসাদুল ইসলাম, ফয়সাল, রেজাউল ইসলাম, আব্দুস সালাম বিশ্বাস, আব্দুল কুদ্দুস, ছাত্রলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম ববি, জামিরুল ইসলাম, মিঠু বিশ্বাস, রিংকু, নাহিদ পারভেজ, তোফাজ্জেল হোসেন তপু, আলামিন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here