তালিকাভুক্তি না হতে পারার বেদনা নিয়ে চলে গেলেন মুক্তিযোদ্ধা সামাদ

 

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার মোক্তারপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না…….রাজেউন)। প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হলেও তালিকায় নাম ছিলো না আব্দুস সামাদের (৬৫)। দারিদ্র্যের চরম কষাঘাতে জর্জরিত এ মুক্তিযোদ্ধা জীবনের শেষ বয়সে এসে মুক্তিযোদ্ধার তালিকাভুক্তি হওয়ার জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হয়েও মুক্তিযোদ্ধার সার্টিফিকেট না পাওয়ার চরম বেদনা নিয়ে গতকাল শুক্রবার না ফেরার দেশে চলেন গেলেন এ মুক্তিযোদ্ধা।

জীবননগর উপজেলার বাঁকা ইউনিয়নের মোক্তারপুর গ্রামের মৃত নূর মোহাম্মদ বকশের ছেলে আব্দুস সামাদ মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। তিনি মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সাইদুর রহমানের সঙ্গী ছিলেন। অশিক্ষিত হওয়ায় সে সময় মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভুক্তি হওয়ার প্রয়োজনীয়তাবোধ করেননি তিনি। ২০১৩ সালে এসে আব্দুস সামাদ মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভুক্তি হওয়ার প্রচেষ্টা শুরু করেন। সে সময় দৈনিক মাথাভাঙ্গাসহ একাধিক জাতীয় পত্রিকায় তাকে নিয়ে খবর প্রকাশিত হয়। তিনি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়সহ স্থানীয় বাছাই কমিটিতে কাগজপত্র জমা দেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধার সর্টিফিকেট না পাওয়ার বেদনা নিয়ে চলে গেলেন তিনি। গতকাল বাদজুমা নামাজে জানাজা শেষে তাকে মোক্তারপুর গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়। প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হয়েও মুক্তিযুদ্ধের সার্টিফিকেট না থাকায় তার কপালে জোটেনি রাষ্ট্রীয় মর্যাদা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *