ড. মাহবুব হোসেন মেহেদীর উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার: জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মাহবুব হোসেন মেহেদীর উদ্যোগে ও সার্বিক পরিচালনায় চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার খাসকররা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহযোগিতায় খাসকররা সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে জাতীয় শিশু দিবস, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, ওষুধ বিতরণ ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি পালিত হয়েছে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত অর্থোপেডিক ট্রমো ও স্পাইন সার্জন ও বাংলাদেশ আ.লীগের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মাহবুব হোসেন মেহেদী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন খাসকররা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা এএইচএম মোয়াজ্জেম। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন, সমাজসেবক প্রফেসর আজিবর রহমান, চুয়াডাঙ্গা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বজলুর রহমান, জেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের, পদ্মবিলা ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি আশাবুল হক আশা, শঙ্করচন্দ্র ইউনিয়ন যুবলীগের আশাবুল হক আশা, খাসকররা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আয়ূব আলী, ৭নং পদ্মবিলা ইউনিয়ন কৃষকলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আখতারুজ্জামান মাসুম প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সার্বিকভাবে পরিচালনা করেন ব্যারিস্টার মূনীর তানভীর।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সারের আজকের এই দিনে অর্থাৎ ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা-মা তাকে আদর করে খোকা বলে ডাকতো। সেই খোকায় শিশু থেকে কিশোর, কিশোর থেকে যুবক, যুবক থেকে জাতির পিতায় পরিণত হন। তিনি তার জীবনের ১৮টি বসন্তকাল জেলে কাটিয়েছেন। নিজের জীবনের এবং পরিবারের সকল সুখ স্বাচ্ছন্দ্যকে বিসর্জন দিয়েছেন। তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের তিন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তি এনে দিয়েছেন। বাংলাদেশ এককালে অত্যন্ত গরিব একটা দেশ ছিলো। তলাবিহীন ঝুড়ি বলে অনেকে কাটাক্ষ করতো। সেই বাংলাদেশ আজ বিশ্বের একটি উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে। হাসিনার কারণে সম্ভব হয়েছে। ওই অনুষ্ঠানে প্রায় ৩ হাজার ৫৭৬ জন রোগীকে বিনামূল্যে দেখা হয় এবং ফ্রি ওষুধ বিতরণ করা হয় এবং স্বেচ্ছায় ৭৬৫ ব্যাগ রক্ত প্রদান করা হয়। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপরে রচনা প্রতিযোগিতা ও দেশাত্ববোধক গানের প্রতিযোগিতা করা হয় এবং বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
এছাড়াও একইভাবে চুয়াডাঙ্গা জেলা সদর উপজেলার মোমিনপুর ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গার কৃতিসন্তান উপমহাদেশের প্রখ্যাত অর্থোপেডিক সার্জন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মাহবুব হোসেন মেহেদী।
ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোমিনপুর ইউপি চেয়ারম্যান বাংলাদেশ কৃষকলীগের চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার। বিশেষ অতিথি ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আবুল কাশেম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাশেম, কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বজলুর রহমান, কৃষকলীগের আশাবুল হক আশা, শঙ্করচন্দ্র ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আশাবুল হক আশা। অনুষ্ঠানটি সার্বিকভাবে পরিচালনা করেন ব্যারিস্টার মূনীর তানভীর। অনুষ্ঠানে প্রায় ২ হাজার ৭৭টি রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেয়া হয় এবং বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ করা হয় এবং স্বেচ্ছায় ২ হাজার ৩২৭ ব্যাগ রক্তদান করা হয়। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর জীবনী রচনা প্রতিযোগিতা, দেশত্ববোধক গানের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় এবং বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
অনুষ্ঠানে সম্মানিত প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. মাহবুব হোসেন মেহেদী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শিশুকাল থেকে জাতির পিতা হয়ে ওঠার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন এবং আগামী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে নৌকায় ভোট প্রার্থনা করা এবং উন্নয়ন অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার করা হয়। সকল সর্বসাধারণ দু’হাত তুলে প্রফেসর মেহেদীর নৌকা প্রতীককে মনোনয়নের জন্য সমর্থন করেন। সভাপতির ভাষণে কৃষকলীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার ও বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন বিষয়ে আলোকপাত করেন এবং আগামী সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে প্রফেসর ড. মাহবুব হোসেন মেহেদীর মনোনয়ন কামনা করেন এবং সকল প্রকার সাহায্য সহযোগিতা করার জন্য দু’হাত তুলেও সমর্থনের অঙ্গীকার জ্ঞাপন করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *