ঝিনাইদহে বাস চাপায় স্কুলছাত্রী নিহত : বাসে আগুন

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহে বাস চাপায় পলি মণ্ডল নামে (১৫) এক স্কুলছাত্রী নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে আরও দুজন। গতকাল শনিবার সকালে শহরের পবহাটী সিটি মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ঝিনাইদহ-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে ও বাসে আগুন জ্বালিয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ জনতা। নিহত স্কুলছাত্রী পলি ঝিনাইদহ শহরের পবহাটি গ্রামের সুকুমার মণ্ডলের মেয়ে ও ফজের আলী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পলি মণ্ডল ও তার সহপাঠী প্রিয়া একটি ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে এসএসসির টেস্ট পরীক্ষা দিতে ঝিনাইদহ ফজের আলী বালিকা বিদ্যালয়ে যাচ্ছিলো। তাদের বহনকারী মোটরসাইকেলটি পবহাটী সিটি মোড়ে পৌঁছুলে ঝিনাইদহগামী এমকে পরিবহনের (যশোর-ব-১১-০০৭৬) একটি বাস তাদের চাপা দিলে পলি, প্রিয়া ও মোটরসাইকেলচালক বিনয় আহত হয়। পরে পথচারীরা তাদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক পলি মণ্ডলকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি কাজী জালাল উদ্দীন আহমেদ জানান, বাস চাপায় স্কুলছাত্রী নিহতের ঘটনায় ক্ষুব্ধ জনতা বাসটি আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। তারা ঝিনাইদহ-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। ওসি জানান, ঝিনাইদহ জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি নিয়ে লাশ সৎকারের জন্য বাড়িতে নিয়ে গেছে নিহতের পরিবার। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানায় মামলা হয়েছে। বাসটির চালক পলাতক রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি কাজী জালাল উদ্দিন জানান, গতকাল সকাল ৯টার দিকে ঝিনাইদহ পৌর এলাকার পবহাটি গ্রাম থেকে পলী ও প্রিয়া ঘোষকে মোটরসাইকেলে করে তাদের চাচা বিনয় ঘোষ ফজের আলী স্কুলে দিতে যাচ্ছিলো। তারা ঝিনাইদহ-মাগুরা সড়কের পবহাটি সিটি মোড় পার হওয়ার সময় যশোর থেকে ছেড়ে আসা কুষ্টিয়াগামী এমকে পরিবহন যাত্রীবাহি বাস তাদেরকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই স্কুলছাত্রী পলী নিহত হয়। আহত হয় প্রিয়া ঘোষ ও বিনয় ঘোষকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করে। দুর্ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ জনতা ঝিনাইদহ-মাগুরা সড়েক গাছের গুঁড়ি ফেলে সকাল ১০টা থেকে অবরোধ করে রাখে। এ সময় তারা ঘাতক বাসটি আটক করে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরে দমকল বাহিনীর কর্মীরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

অন্যদিকে বাস ভাঙচুর ও জ্বালিয়ে দেয়ার প্রতিবাদে বাস শ্রমিকেরা ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া সড়ক অবরোধ করে রাখে। পুলিশ ঘাতক বাসটি আটক করে। সড়ক দুটিতে অবরোধ করে রাখার কারণে অনেক যানবাহন আটকা পড়ে থাকে। যার কারণে শ শ যাত্রী দুর্ভোগের শিকার হয়। এদিকে বেলা ১২টার দিকে পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বিক্ষুব্ধ জনতা ও শ্রমিকেরা দুটি সড়কের অবরোধ তুলে নেয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *