ঝিনাইদহে খুলনা বিভাগের ৩৭ পৌর সভার বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত

 

সরকারি কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা দাবি

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: সরকারি কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা’র দাবিতে ঝিনাইদহে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের খুলনা বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে ঝিনাইদহ ডা. কে আহম্মদ পৌর কমিউনিটি সেন্টারে এ সমাবেশের আয়োজন করে বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশন। সমাবেশ প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক ঝিনাইদহ পৌরসভার সচিব আজমল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আব্দুল আলিম মোল্ল্যা। বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, বাংলাদেশ কাউন্সিলর অ্যাসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির মহা-সচিব সাইদুল ইসলাম মধু, বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা শামছুল আলম, সহ-সভাপতি রঞ্জন কান্তি গুহ, ঝিনাইদহ পৌরসভা কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি ও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর সভার সহকারী প্রকৌশলী কামাল উদ্দীন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী রাশেদ আলী খান, রুহুল আমিন, বস্তি উন্নয়ন কর্মকর্তা বদর উদ্দীন আহমেদ, পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান রিপন, পৌরসভা কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম রাশেদ, শংকর নন্দী, সহ-সভাপতি ইদ্রিস আলী, সেলিম রেজা, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহিনুর ইসলাম, হাবিবুর রহমান, শফিকুল ইসলাম, শরাফত হোসেন, অনজলী রায়, ইয়াসমিন আরা ঝর্ণা, নাজিরুল ইসলামসহ খুলনা বিভাগের ৩৭ পৌর সভার প্রায় ২ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয়, বিভাগীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। বক্তারা বলেন, খুলনা বিভাগসহ বাংলাদেশের অনেক পৌরসভায় মাসের পর মাস বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না কর্মচারী-কর্মকর্তারা। দ্রুত বকেয়া বেতন পরিশোধ ও সরকারি কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা দেয়ার জোর দাবি জানান তারা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *