ঝিনাইদহের মাধবপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে আম গাছ কর্তন

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের মাধবপুর গ্রামের চকমারি পাড়ার মৃত সুন্দর আলীর ছেলে শাহজান মিয়ার বাগানের ২০ টি আম রুপালি গাছের চারা কেটে দিয়াছে দুর্বৃত্তরা। জানা গেছে, মাধবপুর গ্রামের চকমারি পাড়ায় শাহাজান মিয়া তার ৪৬ শতক জমির উপর নার্সারি ও আমের বাগান গড়ে তোলে। বাগানে প্রায় ২০০ টি আমের গাছ রয়েছে। এ বছর কিছু গাছে আম এসেছে। এ বাগান থেকে ২০ টি আম গাছ কেটে দিয়াছে দুর্বৃত্তরা। বাগানের মালিক শাহাজান মিয়ার সাথে কথা বলে জানা গেছে, ১৬ তারিখ রবিবার গভীর রাতে কে বা কাহারা আমার গাছ কেটে দিয়াছে। ভোর বেলা আমার বাগানের পাশে বাবলু নামের একজন পাশে পাটের খেত নিড়াতে যায়ে দেখতে পায় আম গাছ গুলি কাটা অবস্থায় জমিতে পড়ে রয়েছে, এই পরে বাড়িতে খবর দিলে আমরা গিয়ে দেখতে পায়। সে আরও জানায় পাশের বাড়ির কতিপয় লোকজনের সাথে অনেক দিন যাবত বৈরী সম্পর্ক রয়েছে। তারাই এই কাজ করতে পারে। কারন এই চক্রটি এর আগেও আমার ৪০০ টি আমের চারা তুলে ফেলে। যাহা নিয়ে আমি আদালতে মামলা দায়ের করি। ইতিপূর্বে এই চক্রটি আমাকে ফাঁসানোর জন্য ঘরের মধ্যে আগ্নেয় অস্ত্র রেখে পুলিশকে খবর দেয়।

পুলিশ এসে অস্ত্র উদ্ধার করে আসল অপরাধীদের ধরে ফেলে তাদের আদালতে হাজির করে। উক্ত খবর বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হয়। এর আগে ওরা আমার এবং স্ত্রী, কন্যাকে মারধর করে আহত করে হাসপাতালে ভর্তি করে সে খবর দৈনিক গ্রামের কাগজ ও আমার সংবাদ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

এ ঘটনায় ঝিনাইদহ আদালতে একটি মামলা রয়েছে। এই ভাবে তারা একের পর এক অপরাধ করে প্রভাবশালীদের ছত্র ছায়ায় আমাদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে। আমি এই প্রসঙ্গে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। প্রশাসন যদি ব্যবস্থা না গ্রহণ করে তাহলে এই চক্রটি যে কোন সময় আমার পরিবার কে হত্যা করতে পারে। এ প্রসঙ্গে বেতাই পুলিশ ক্যাম্পের এএসআই শরিফুল ইসলাম বলেন, ঘটনা আমার জানা নেই। কেউ আমার নিকট কোন অভিযোগ করেনি। এরকম কোনো ঘটনা ঘটলে তো আমাকে জানাতো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *