জামজামির পলিটেকনিক ছাত্রীর নীলছবি ইন্টারনেটে : থানায় মামলা

 

জামজামি প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার জামজামির মেয়ে রাজশাহী পলিটেকনিকের মেধাবী ছাত্রীর (১৭) সাথে সখ্যতা, অতঃপর তাকে ফুঁসলিয়ে নীলছবি তৈরি শেষে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ায় তুলকালাম ও উত্তেজনা ছড়িয়েছে। এ নিয়ে ওই ছাত্রীর পরিবার পড়েছে বিপাকে। বিপন্ন হতে বসেছে মেধাবী এ কলেজছাত্রী শিক্ষাজীবন। এর নেপথ্যের নায়ক প্রতিবেশী বখাটে যুবক রনক (২০) ও সহযোগী জামজামি বাজারের কম্পিউটার ডাউনলোড ব্যবসায়ী অপর প্রতিবেশী যুবক মুনিয়ার (২৪)। তবে কেউ কেউ বলেছে এ ছাত্রীকে জড়িয়ে নীলছবির ভিডিও ক্লিপ তৈরি শেষে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা করা হয়েছে।

থানায় রুজুকৃত অভিযোগের সুত্রে জানাগেছে, আলমডাঙ্গা জামজামির মেয়ে রাজশাহী মহিলা পলিটেকনিক্যাল কলেজের প্রথম বর্ষের মেধাবী ছাত্রী (১৭)। পরিবার জানায় প্রতিবেশী ইয়ার আলীর বখাটে ছেলে রনক (২০) অনেকদিন যাবত তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলো। এক পর্যায়ে প্রেম নিবেদন ও বিয়ে করার প্রস্তাব দেয় সে। রাজি না হলে প্রতিবেশী প্রবাসী আব্দুর রশিদের ছেলে সহযোগী মুনিয়ার (২৪) জামজামি বাজারের মুনিয়ার কম্পিউটার ডাউনলোড ব্যবসায়ীর কারসাজিতে এ মেধাবী ছাত্রীকে জড়িয়ে নীলছবির ভিডিও ক্লিপ তৈরি করে। এ নীলছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেবে বলে অব্যাহতভাবে মেধাবী এ কলেজছাত্রী ও তার পরিবারকে হুমকি দিতে শুরু করে। অতঃপর জামজামি বাজারের মুনিয়ার কম্পিউটার থেকে গত পরশু ৪/৫ মিনিটের এ নীল ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়া হয়। উচ্ছৃঙ্খল যুব সম্প্রদায় বিকৃত মোবাইল সেবীদের মারফতে ছড়িয়ে যায়। বাধ্য হয়েই গতকাল বিকেলে কলেজছাত্রীর মা বাদী হয়ে প্রতিবেশী বখাটে রনক ও সহযোগী মুনিয়ারসহ কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে আলমডাঙ্গা থানায় মামলা করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *