জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন করেছে চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরসহ সারাদেশের বিএনপি : বক্তারা বলেছেন

0
36

বহুদলীয় গণতন্ত্র ও মানুষের বাকস্বাধীনতা পুনরুদ্ধার করেছিলেন শহীদ জিয়া

 

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: বিএনপি গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন করে। চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ সারাদেশেই বিএনপি এ দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা করেছে। সভায় বক্তারা বলেছেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান দেশে বহুলদীয় গণতন্ত্র ও মানুষের বাক স্বাধীনতা পুনরুদ্ধারের নায়ক। তার আদর্শে দেশ গড়তে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে এক কাতারে সমাবেত হতে হবে। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমে ভোটাধিকার আদায় করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

চুয়াডাঙ্গা বিএনপির দু পক্ষসহ মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সমর্থকদের কার্যালয়ে পৃথকপৃথকভাবে আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। মেহেরপুর বিএনপি রাজপথে সমাবেশ করেছে। সমাবেশে বক্তারা জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস সম্পর্কে তুলে ধরার পাশাপাশি চলমান আন্দোলন বেগবান করার আহ্বান জানান।

জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দলীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভার আয়োজন করে। জেলা বিএনপির সহসভাপতি এম জেনারেল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা। বিশেষ অতিথি ছিলেন দফতর সম্পাদক অ্যাড. আসম আব্দুর রউফ, সদর থানা বিএনপির সভাপতি অ্যাড. শামীম রেজা ডালিম, সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মণ্টু, পৌর বিএনপির সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতন, সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক মালিক। বক্তব্য রাখেন জেলা যুবদলের যুগ্মআহ্বায়ক মোকারম হোসেন, সদস্য মুকুল জোয়ার্দ্দার, জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক শরিফ উর জামান সিজার, জেলা জাসাস সভাপতি শহিদুল হক বিশ্বাস, জেলা ওলামা দলের সভাপতি ফজলুর রহমান প্রমুখ।

অপরদিকে জেলা বিএনপির অপরাংশ কেদারগঞ্জস্থ কার্যালয়ে আলোচনাসভার আয়োজন করে। সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা পৌর বিএনপি একাংশের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মনি। প্রধান অতিথি ছিলেন একই অংশের জেলা সভাপতি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মুহা. অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস। বিশেষ অতিথি ছিলেন অ্যাড. এমএম শাহাজাহান মুকুল, জীবনননগর পৌর মেয়র হাজি নওয়াব আলী, বিজেপির কেন্দ্রীয় যুগ্মমহাসচিব সেখ সাঈদ আহম্মেদ, আব্দুল হালিম হিরু, হাসান ইমাম বকুল, মাহমুদুল হক পল্টু, রউফুন নাহার রীনা, আবু আলা শামছুজ্জামান, অ্যাড. হেদায়েত হোসেন আসলাম, বিজেপির জেলা আহ্বায়ক শফিউল ইসলাম, নতিপোতা ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনি প্রমুখ।

এছাড়া মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম ও বিএনপি নেতা লে.কর্নেল কামরুজ্জামানের অনুসারীরা পৃথক পৃথক স্থানে জেলা বিএনপির ব্যানারে আলোচনাসভার আয়োজন করে। কামরুজ্জামানের সমর্থকদের সিনেমাহলপাড়াস্থ কার্যালয়ে আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক আব্দুল ওহাব মল্লিক। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার আলী হোসেন। বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা মহাসিন আলী বিশ্বাস, মফিজুর রহমান মনা, সৈয়দ শরিফুল আলম বিলাস, মহিলাদল নেত্রী মমতাজ বেগম সন্ধ্যা, এলিজা বেগম প্রমুখ।

অপরদিকে জাহাঙ্গীর আলমের সমর্থকদের কোটপাড়াস্থ কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপি একাংশের সহসভাপতি আইনুর হোসেন পচা। প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হবি। প্রধান বক্তা ছিলেন তৃণমূল দলের নেতা আবু বক্কর সিদ্দিক বকুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি নেতা আরশেদ আলী কালু, মৎস্যজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক ওহিদুল ইসলাম ওহিদ, হামিদুল হক নেতাজী, আজাদুল ইসলাম আজাদ প্রমুখ।

জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার জীবননগরে পৌর বিএনপির উদ্যোগে এ দিবস পালিত হয়েছে। পৌর বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে আলোচনাসভার মধ্যদিয়ে দিবসটি পালন করা হয়। পৌর বিএনপির সভাপতি শাহজান কবীরের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহাতাব উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু হাসান, বিএনপি নেতা কাউন্সিলর নূর নবী শাহ, আমিনুল ইসলাম, আহম্মদ আলী, হাসান আলী, কিনার উদ্দীন, রবি সরদার, নজরুল ইসলাম, যুবনেতা আব্দুল হামিদ, মনির, আজমত, জাকির, আরিফ, সাইদুর, সুমন, ছাত্র নেতা জাকির আহম্মেদ, শামীম, একরামুল, জুয়েল, এসএম শামীম, আলীম, টোকন, মামুন, রুহুল, সোহাগ প্রমুখ।

দামুড়হুদা অফিস জানিয়েছে, দামুড়হুদায় ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় দামুড়হুদা ব্রিজ রোডের দলীয় কার্যালয়ের সামনে দামুড়হুদা উপজেলা বিএনপির বাবু খান গ্রুপের আয়োজনে ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে দামুড়হুদা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি রহমান মালিথার সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোকাররম হোসেন, থানা যুবদল সেক্রেটারি রফিকুল হাসান তনু, হাউলী ইউনিয়ন বিএনপি সেক্রেটারি আব্দুল ওয়াহেদ, নতিপোতা ইউনিয়ন বিএনপি সেক্রেটারি সামসুল ইসলাম মেম্বার, বিএনপি নেতা আবদার আলী, জেলা যুবদল নেতা মামুন রেজা, যুবদল নেতা রমজান আলী টিটন, ছাত্রদলের নেতা তাজ-আলম, যুবদল নেতা একরামূল মেম্বার, আবুল বাশার, কামাল হোসেন, আরিফুল ইসলাম, মমিনুর রহমান, সেলিম, সবুজ, জনি, রুবেল, রাসিদ, কাদের, জনি-২, জয়নাল, জুয়েল, আলীম, ইছারুল, শিমুল, সোহান, তুহিন, ইব্রাহীম, ডিউক, তিতুয়ার, ফারুক, মাসুদ, অনিক, মিরাজ প্রমুখ। পরিচালনা করেন যুবদল নেতা মাহফুজুর রহমান মিল্টন। দোয়া মাহফিল পরিচালনা হাফেজ আলী হায়দার।

দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দামুড়হুদায় ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রত্যুষে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে কর্মসূচির শুভসূচনা করা হয়। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলা বিএনপির সভাপতি লিয়াকত আলী শাহ’র সভাপতিত্বে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবুল কাশেম, নতিপোতা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামরুজ্জামান টুনু, কুড়ুলগাছি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আতিয়ার রহমান, হাউলী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ আলী শাহ মিন্টু, সহসভাপতি পিয়ার আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত আলী, বিএনপি নেতা গোলাম সামাদ, শামসুল মেম্বার, নওশাদ, মজিবার, আজিজুল, ওসমান, আশা যুবদল নেতা শামসুজ্জোহা পলাশ, সাইদ মড়ল, এমএ হাশেম, হাফিজুল, ইয়ানবী, শফিউর, মজিবার, জেলা ছাত্রদলের সদস্য ফিরোজ হাসান মন্টু, ইমতিয়াজ হোসেন, শাকিল, সাজু, দেলোয়ার, আরিফ, তোতা, তিতাস, জুবায়ের, জাহিদ, ভূট্টু, মমিন, এমাদুল, আলমগীর, রমজান, আমিন, ওয়াসিম, অনিক, মেরাজ, পারভেজ, জাহাঙ্গীর, রউফ, সালাম প্রমুখ। আলোচনা শেষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন ওলামা দলের সভাপতি ইউনুচ আলী শেখ।

দৌলতপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা বিএনপির আয়োজনে বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে দৌলতপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য রেজা আহমেদ বাচ্চু মোল্লার তারাগুনিয়া বাসভবনে আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন রেজা আহমেদ বাচ্চু মোল্লা, রহুল কুদ্দুস, বিল্লাল হোসেন, গোলাম মোস্তফা, অধ্যক্ষ রেজাউল করীম, আকবর আলী (জাতীয় নেতা), শের আলী সবুজ, শামীম রেজা, সেলিম আহমেদ প্রমুখ।

গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মেহেরপুর জেলা বিএনপির সহসভাপতি জাভেদ মাসুদ মিল্টনের উদ্যোগে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে বামন্দী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বামন্দী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপি নেতা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জুলফিকার আলী ভুট্টো। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা জিয়া পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শফিউল ইসলাম, উপজেলা যুবদল নেতা আব্দুল ওহাব বুলবুল, বামন্দী ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হারনুর রশিদ বাচ্চু, জিয়া পরিষদ নেতা ইউপি সদস্য রবিউল ইসলাম, ছাত্রদল নেতা চপল বিশ্বাস, আশিক, হাসের প্রমুখ। জাতায়ীতাবাদী চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থার পুনর্বহালের দাবিতে কঠোর আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানান বক্তারা।

আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছেন, জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে গতকাল আলমডাঙ্গা উপজেলা ও পৌর বিএনপি বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। সকাল ৭টার দিকে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ১০টার দিকে দলীয় কার্যালয়ে সামনে সমাবেশ ও শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান শীর্ষক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন পৌর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইসরাফ হোসেন। প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শেখ সাইফুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার, উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য এমদাদুল হক ডাবু, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান পিন্টু, উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান আজিবার রহমান, সহসভাপতি চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান হাসান, উপজেলা কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন। উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেনের উপস্থাপনায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সেদিন দেশের এক ক্রান্তিকালে সিপাহী জনতা জিয়াউর রহমানকে মুক্ত করে রাষ্ট্র পরিচালনার মঞ্চে নিয়ে আসেন। ১৯৭৫ সালের পর থেকে ৭ নভেম্বর রাষ্ট্রীয়ভাবে সরকারি ছুটির দিন হিসেবে পালিত হলেও ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে ছুটি বাতিল করেন। সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা হাফিজুর রহমান চমক, উপজেলা যুবদলের যুগ্মআহ্বায়ক মিল্টন মল্লিক, মাগরিবুর রহমান, ওহিদুল ইসলাম বাবু, গোলাম হোসেন, পৌর যুবদল নেতা মুকুল, মামুন, উজ্জ্বল, কাদের, গোলাম বিশ্বাস, বোরহান উদ্দিন, লাল্টু, ছাত্রদল নেতা তৌফিক খান, লিমন, ডালিম, রহিদ, বাপ্পি, রানা, সজীব, রাশেদ, তনু, শান্ত, সাগর, রনি, মানিক, তন্ময়, আকরাম প্রমুখ।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দর্শনায় বিএনপির ৪টি পক্ষ পৃথক পৃথকভাবে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে দিবসটি পালনের লক্ষ্যে দর্শনা পৌর বিএনপির একাংশের আয়োজনে দর্শনা বাসস্ট্যান্ড চত্বরে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিএনপি নেতা ফজলুল হকের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আলোচনা করেন জেলা বিএনপি একাংশের সহসভাপতি হাজি ইঞ্জিনিয়ার মোখলেসুর রহমান তরফদার টিপু। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন দামুড়হুদা উপজেলা বিএনপির সভাপতি খাজা আবুল হাসনাত। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দর্শনা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল ইসলাম খোকন, ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা ইদ্রিস আলী, আশরাফ আলী, সাব্দার হোসেন, রফিকুল আলম, আশরাফুল হক, মশিয়ার রহমান মিলন, আসাবুল ইসলাম ও আব্দুল হাই। আব্দুল মান্নানের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা জিন্নাত, জব্বার, হানিফ, লুতফর, মোমিন, কাদের, হান্নান মেম্বার, শহিদুল মোল্লা, মুহিত, মুনসুর মণ্ডল, তোফাজ্জেল হোসেন, মোখলেসুর রহমান, জহিরুল, যুবদল নেতা নাসির উদ্দিন খেদু, সোহেল তরফদার, সাত্তার, সাঈদ, ছাত্রদল নেতা আমজাদ, টিটু, ফরিদ, রাজ প্রমুখ।

কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা মাহমুদ হাসান খান বাবু সমর্থিত দর্শনা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, একই দিন বিকেলে দর্শনা রেলইয়ার্ড চত্বরে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিএনপি নেতা ফরজ আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা করেন মহিদুল ইসলাম, জেলা শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক সাবু তরফদার, বিএনপি নেতা শফিউল্লাহ, আজিজুল হক, নুরইসলাম, রেজাউল, মোমিন, মিরাজ, সেলিম, দর্শনা পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক নাহারুল ইসলাম, যুবদল নেতা আনোয়ার হোসেন, শহিদুল, মোতালেব, আরুক, অপু, সানোয়ার, কাশেম, মাহবুল, ছাত্রদল নেতা জাহান আলী, টুটুল শাহ, শিমুল, হাসু, সজিব, জাকির, আরাফাত, আলতাব প্রমুখ। এর আগে একটি র‌্যালি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

এদিকে সাবেক সংসদ সদস্য জেলা বিএনপির সভাপতি হাজি মোজাম্মেল হক সমর্থিত পক্ষের দর্শনা পৌর বিএনপির আয়োজনে সন্ধ্যায় পৌর বিএনপি কার্যালয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। পৌর বিএনপির সভাপতি হাজি খন্দকার শওকত আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা করেন বিএনপি নেতা আজাহার মাস্টার, নুরু মিয়া, আমিনুল ইসলাম, রহমান মিয়া, নুরু মিস্ত্রী, আসাদুল ইসলাম, যুবদল নেতা জাহাঙ্গীর আলম চঞ্চল, মিতুল, ছাত্রদল নেতা সেলিম মেহফুজ মিল্টন, মান্নান মাস্টার, সজিব প্রমুখ।

এদিকে দর্শনা পৌর ছাত্রদলের আয়োজনে বিকেলে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রয়াত বিএনপি নেতা আক্তারুল ইসলামের গদিঘরে অনুষ্ঠিত সভার সভাপতিত্ব করেন পৌর ছাত্রদলের সভাপতি বাবুল আক্তার। আলোচনা করেন পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান বুলেট, যুগ্মসম্পাদক ইকবাল হোসেন, মোমিনুল ইসলাম, তোতা, সরাজ, রবি, ডাবলু, বদর, নাজিম, আরেফিন, ছাত্রদল নেতা নুরুজ্জামান, ব্রাইট, সোহেল, নুরগণি, রকি, সাইদুর, তপন, মুকুল, বকুল, মাসুম, রাব্বি, জনি প্রমুখ।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, এ দিবস উপলক্ষে মেহেরপুরে সমাবেশ করেছে জেলা বিএনপি। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পৌর কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পৌর বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর বিশ্বাস। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মেহেরপুর-১ আসনের সাবেক এমপি মাসুদ অরুন। বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি আব্দুর রহমান, আলমগীর খান ছাতু, সাধারণ সম্পাদক মুজিবনগর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম প্রমুখ। বক্তারা বিপ্লব ও সংহতি দিবসের শপথের মাধ্যমে নির্বাচনকালীন নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলন সংগ্রাম বেগবান করার আহ্বান জানান। সমাবেশে অংশ নেন জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রহিম, সদর থানা বিএনপির সভাপতি শহিদুল হক মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক আমঝুপি ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, মুজিবনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুদ্দিন বিশ্বাস, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রশিদ, জেলা তাঁতিদলের সভাপতি আরজুল্লাহ মাস্টার বাবলু, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান জুয়েল, জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের যুগ্মআহ্বায়ক তোফায়েল আহমেদ, ছাত্রদল নেতা সোহেলসহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here