ছাগল-গরু বাঁচাতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ গৃহীনি

চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার জোড়গাছায় রান্নাঘরের আগুন গোয়ালে

স্টাফ রিপোর্টার: রান্নাঘর থেকে গোয়ালে ছড়িয়ে পড়া আগুন থেকে ছাগল-গরু বাঁচাতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হয়ে তীব্র যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন নাজমা খাতুন (৩০)। তিনি আলমডাঙ্গা জোড়গাছা বিশ্বাসপাড়ার আলী হোসেন মাস্টারের স্ত্রী। গতপরশু নিজেদের রান্নাঘর থেকে আগুন দ্রুত গোয়ালে ছড়িয়ে পড়লে তিনি গরু ও ছাগল বাঁচানোর চেষ্টা করেন। গরু দুটি উদ্ধার করতে পারলেও ৭টি ছাগলের মধ্যে একটি আর উদ্ধার করতে পারেননি তিনি। সেটি আগুনে পুড়ে অঙ্গার হয়ে গেছে।

অগ্নিদগ্ধ নাজমা খাতুনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার শয্যাপাশে থাকা নিকটাত্মীয় স্বজন ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে বলেছে, গতপরশু শনিবার সন্ধ্যার পর রান্নার কাজ শেষ করে রাতের খবার খাওয়ার পর রাত আনুমাকি ৯টার দিকে বাড়ির সকলে যখন ঘুমোনোর জোগাড়, ঠিক তখনই রান্না ঘর থেকে আগুণ ছড়িয়ে পড়ে পাশের গোয়ালে। রান্নাঘর পুড়ি ভস্মীভুত হয়। গোয়াল থেকে দুটি গরু ও ৭টি ছাগল উদ্ধার করতে মরিয়া হয়ে ওঠেন নাজমা খাতুন। একটি ছাগাল পুড়ে যায়। বাকিগুলো উদ্ধার করতে পারলেও নাজমা খাতুন অগ্নিদগ্ধ হয়ে যন্ত্রণায় কাতরাতে শুরু করেন। তাকে ওই রাতেই চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। মুখের ও শরীরের একপাশ আগুনে ঝলসে গেছে। দু সন্তানের জননী নাজমা খাতুনকে সুস্থ করে তোলার সকল প্রকারের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *