চোর ধরতে ভূত চালান দিয়ে শিশু নির্যাতন

 

কেএ মান্নান:  আলমডাঙ্গার জামজামি বাজারের সাহা ওয়েল স্টোরের ক্যাশ বাক্স থেকে নগদ টাকা চুরি হয়েছে। চোর ধরতে তান্ত্রিক কবিরাজ ডেকে জিন চালান দেয়ার নাটক হাস্যরসের খোরাক হয়ে দাঁড়িয়েছে। টাকা উদ্ধারের নামে দোকানের শিশু কর্মচারীর ওপর চালানো হয়েছে মানসিক নির্যাতন। বিষয়টি নিয়ে এলাকার সচেতন মহল ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গার জামজামি বাজারের স্বর্গীয় মহাদেব সাহার ছেলে শ্রী উদয় সাহা। তার রয়েছে দোকান। দোকানের নাম সাহা ওয়েল স্টোর। এ দোকানের তিন শ্রমিকই শিশু। যাদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠ নেয়ার বয়সই পার হয়নি । স্থানীয়রা বলেছেন, ব্যবসায়ী শ্রী উদয় প্রায়ই তার দোকান থেকে টাকা চুরি হয় বলে পাশের দোকানিদের জানান। গতকাল রোববার তার দোকানের ক্যাশ বাক্স থেকে নগদ ১৩ হাজার টাকা চুরি হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি । এ সময় ব্যবসায়ী উদয়ের সন্দেহের তীর গিয়ে পড়ে এ দোকানে কর্মরত ১২ বছর বয়সী শ্রমিক  রাজনের ওপর। শুরু হয় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ। এক পর্যায়ে ডেকে আনা হয় কথিত তন্ত্র সাধিকা।  স্থানীয়রা জানান কথিত তন্ত্রসাধিকা শুরু করেন ভণ্ডামি। মন্ত্র জপতে থাকেন। ভূত চালানের ভয় দেখিয়ে শিশু শ্রমিককে আতঙ্কগ্রস্ত করে তোলেন তিনি। ভূতের ভয়ে শিশু রাজন টাকা চুরির দায় স্বীকার করে। উৎসুক জনতার ভিড় জমে। শিশু শ্রমিককে চোর সাব্যস্ত করা হলেও টাকা উদ্ধারে তিনি ব্যর্থ হন। ফলে অনেকেই তান্ত্রিকের ওপর চড়াও হতে শুরু করেন। তন্ত্র সাধিকা সটকে পড়েন। জিজ্ঞাসাবাদে সাহা স্টোরের মালিক শ্রী উদয় সাহা বলেছেন ক্যাশ বাক্সের চাবি থাকে নিজের কাছে । অথচ টাকা চুরি হয়। এ কথা শুনে স্থানীয়রা দোকানি উদয় সাহার ওপরও চড়াও হন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *