চুয়াডাঙ্গা সদরের দোস্ত বাজারে নির্বাচনী গণসংযোগ ও মতবিনিময়সভায় এমপি টগর

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়তে আবারও নৌকা প্রতীকে ভোট দিন
বেগমপুর প্রতিনিধি: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আ.লীগের সহসভাপতি হাজি আলী আজগার টগর গণসংযোগ, সভা-সমাবেশ, দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় অব্যাহত রেখেছেন। তারই অংশ হিসেবে গতকাল সোমবার বিকেল ৪টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদরের দোস্তবাজার ঈদগা কমিটি ও এলাকার কয়েকটি গ্রামের আয়োজনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময়সভায় প্রধান অতিথি বলেন, বাঙালি জাতির জন্য আগস্ট হচ্ছে শোকের মাস। স্বাধীনতা সংগ্রামের হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের স্থপতি বাঙালি জাতির মুক্তিদাতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান। ক্ষমতা লোভী কিছু মানুষ ১৫ আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে নির্মমভাবে হত্যা করে। সে সব ঘাতকেরা আজও দেশের মধ্যে ঘাপটি মেরে নানাভাবে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তাই আসুন শোকের মাসে আমরা শপথ নিই বাংলাদেশ আ.লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সোনার বাংলাদেশ গড়তে সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করি। সোনার বাংলা গড়তে হলে আ.লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীকে ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে দেশ, জাতি ও দলের স্বার্থে নিষ্ঠার সাথে কাজ করতে হবে। প্রধান অতিথি আরও বলেন, আমি নেতা নই, নৌকার একজন সেবক হিসেবে আপনাদের সেবা করে জীবনের বাকি সময়টুকু পার করতে চাই। বর্তমান সরকার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসে দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এরই মধ্যে কৃষিতে ভর্তুকি, বিনামূল্যে বই বিতরণ, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, বিধবাভাতা, বয়স্কভাতা, মাতৃকালীন ভাতা, ভিজিএফ, ভিজিডি, চিকিৎসা ব্যবস্থা, ভিক্ষুকমুক্তকরণ, মানুষের মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি, রিজার্ভ বৃদ্ধি, চাকরিজীবীদের সুযোগ সুবিধা। এ ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে। নির্বাচন সামনে এসেছে অনেক ভুঁইফোড় নেতা কথার ফুলঝুড়ি নিয়ে দলের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াতে পারে তাদের থেকে সতর্ক থাকতে হবে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এ ধারা অব্যাহত রাখার দায়িত্ব আপনাদের। আপনাদের সকল চাওয়া পূরণের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। বেগমপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান দোস্ত বাজার ঈদগা কমিটির সভাপতি সামসুল হকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন, তিনি বলেন হাজি আলী আজগার টগরের জনপ্রিয়তা এলাকায় এসে দেখলাম। আগামীতে তিনিই নৌকার টিকেট পাবেন এ ব্যাপারে কারো দ্বিমত থাকা উচিত না। আপনাদের কোনো দাবি-দাওয়া থাকলে আমার কাছে যাবেন জেলা পরিষদের দরজা সবসময় খোলা। সেই সাথে মনে রাখবেন আ.লীগ দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নোয়নের রাজনীতি করে। বেগমপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদুল্লাহর উপস্থাপনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন- ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি মোবারক হোসেন, দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, দর্শনা পৌর আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা আ.লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান টিপু, জেলা পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ড সদস্য খলিলুর রহমান, জেলা কৃষকলীগের সহদফতর সম্পাদক শেখ কামরুল ইসলাম, তিতুদহ ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন মাস্টার, আ.লীগ নেতা আব্দুল বারি বিশ্বাস, আব্দুল খালেক মোল্লা, বাবলু মেম্বার, আব্দুল্লা, মতিয়ার রহমান, আব্বাস আলী, শফিকুর রহমান রাজু, খাইরুল ইসলাম, আবু সালেহ, আলী কদর মেম্বার, জাহিদুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, আব্দুর রহমান, শাজাহান, সহিদুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা হরমুজ, বেগমপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সোলাইমান হক ছলিম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহীন আহম্মেদ, যুবলীগ নেতা ইনাফ বিশ্বাস, আতিয়ার রহমান, ছাত্রলীগ নেতা তপু সরকার, আল আমিন প্রমুখ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *