চুয়াডাঙ্গা শান্তিপাড়ার সুমনের পায়ের রগ কাটা মামলার আসামি ছাত্রলীগের মোমিন গ্রেফতার : প্রতিবাদে আজ চুয়াডাঙ্গার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ধর্মঘট আহ্বান

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা শান্তিপাড়ার সুমনের পায়ের রগ কাটা মামলার আসামি ছাত্রলীগ কর্মী মোমিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সদর থানা পুলিশ চুয়াডাঙ্গা শহরের শিশুস্বর্গ  নামক  পার্ক এলাকায় অভিযান চালিয়ে গতকাল বেলা ১টার দিকে তাকে গ্রেফতার করে। তার মুক্তি  ও ওসির অপসারণ দাবিতে আজ মঙ্গলবার চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ধর্মঘটের আল্টিমেটাম দিয়ে শহরে মাইকিং করেছে ছাত্রলীগ।

পুলিশ জানায়, গতকাল সোমবার বেলা ১টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  সদর থানার এসআই মনির হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ শিশুস্বর্গ পার্কে অভিযান চালান।  এ সময় চুয়াডাঙ্গা বড় বাজারপাড়ার মুক্তার বিশ্বাসের ছেলে চুয়াডাঙ্গা সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র আব্দুল মোমিনকে আটক করে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল কবীর জানান, আটককৃত মোমিন শান্তিপাড়ার সুমনের পায়ের রগকাটা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। উল্লেখ্য, গত ৬ জানুয়ারি রাতে শহরের শান্তিপাড়ার রুহুল আমিনের ছেলে সুমনের দুই পায়ের রগ কেটে দেয় দুর্বৃত্তরা। পরের দিন সুমনের বাবা রুহুল আমিন বাদী হয়ে মোমিনসহ ১০ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন।

এদিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের পক্ষে জানানো হয়েছে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার অন্যতম নেতা ও চুয়াডাঙ্গা সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের মেধাবী ছাত্র আব্দুল মোমিনকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলায় পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আমরা এ গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেইসাথে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মোমিনসহ মিথ্যা মামলার প্রত্যেক আসামিকে হয়রানি বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এরশাদুল কবীর চৌধুরীকে প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সকল শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে অনির্দিষ্টকালের ছাত্রধর্মঘট অব্যাহত থাকবে এবং জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সকল সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদেরকে ধর্মঘট পালনের উদাত্ত আহ্বান জানানো হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.